বাটলার ঝড়ে ছত্রখান চেন্নাই

0
291
চেন্নাই সুপার কিংস, রাজস্থান রয়্যালস, আইপিএল, ক্রিকেট, Chennai Super Kings, Rajasthan Royals, IPL, Cricket, Rtvonline

স্পোর্টস ডেস্ক:
এবারের আইপিএলে নিজের ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন জস বাটলার। দলের প্রয়োজনীয় মুহূর্তেও যে তিনি ব্যাটকে তরবারি বানাতে পারেন তার জ্বলন্ত প্রমাণ গতকালের ম্যাচ। শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ১২ রানের। এক্ষেত্রে বোলার ডোয়াইন ব্র্যাভো। অপরপ্রান্তে তার সঙ্গী মাত্রই ক্রিজে আসা জোফ্রা আরচার।

প্রথম বলে ডট আদায় করে নিলেন ব্র্যাভো। পরের বলে দুই রান তুলে নিলেন বাটলার। তৃতীয় বলে আবারও ২ রান। চতুর্থ বলকে একেবারে সীমানার বাহিরে ফেললেন তিনি। পঞ্চম বলে এক রান নিয়ে ম্যাচকে নিজেদের করে নিলেন বাটলার। এতে করে প্লে-অফের আশা টিকে থাকলো রাজস্থানের।

শুক্রবারের একমাত্র ম্যাচে জয়পুরের সাওয়াই মানসিং স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন চেন্নাই অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ব্যাটিংয়ে নেমেই দলীয় ১৯ রানে রাইডুকে হারায় চেন্নাই। এরপর ওয়াটসন ও রায়না মিলে দ্বিতীয় উইকেটে ৮৬ রানের গুরুত্বপূর্ণ জুটি উপহার দেন। দলীয় ১০৫ রানে ওয়াটসন নিজস্ব ৩৯ রানে আরচারের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন। অপরপ্রান্তে সুরেশ রায়না সাবলীল ব্যাটিং করে নিজের অর্ধশত তুলে নেন। তবে নিজের স্কোরকে বেশিদূর নিয়ে যেতে পারেননি তিনি। অর্ধশতের পর মাত্র দুই রান যোগ করেই তাকে ফেরত যেতে হয়। ৩৫ বলে করা ৫৩ রানে ইনিংসটিতে ছিল ৬টি চার ও ১টি ছয়ের মার। শেষ দিকে ধোনির ২৩ বলে ৩৩ রান ও বিলিংস ২২ বলে ২৭ রান দলীয় স্কোরকে ১৭৬ রানে গিয়ে ঠেকায়।

রাজস্থানের পক্ষে জোফ্রা আরচার ২টি ও ইশ সোধি ১টি উইকেট লাভ করেন।

১৭৭ রানের লক্ষ্যে প্রথম দুই ওভারে ব্যাট করার সুযোগই পাননি স্টোকস। বাটলার একাই তুলেছেন ২৭ রান। এই একার লড়াই চলেছে পুরো ২০ ওভার। ইনিংসের ২০তম ওভারের পঞ্চম বলে যার সফল সমাপ্তি টানলেন দৌড়ে দুই রান তুলে। আগের বলেই মিড উইকেট দিয়ে ছক্কা মেরে সমীকরণটা নিজেদের পক্ষে এনেছিলেন বাটলারই। ৬০ বলে ৯৫ রানের ইনিংসে দুই ছয়ের পাশাপাশি ছিল ১১টি চার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্টুয়ার্ট বিনির রান ২২!

বাটলারের দারুণ শুরুর পাশাপাশি টপ অর্ডারের ব্যর্থতা দেখা গিয়েছে পাওয়ার প্লেতে। মাত্র ৩ বলের ব্যবধানে স্টোকস (১১) ও রাহানে (৪) ফিরে যান। ৪৬ রানের জুটি গড়ে স্যামসন একটু সাহস জোগালেও ২২ বলে ২১ রান বাটলারের ওপর চাপই বাড়িয়েছে। স্যামসনের পর চোপড়া কিংবা বিনিও খুব একটা সাহায্য করতে পারেননি। ১৮তম ওভারে নেমে দুই ছক্কায় গৌতমই (৪ বলে ১৩ রান) ম্যাচটা রাজস্থানের দিকে হেলিয়ে দেন। আর শেষ ওভারে ১২ রান তোলার দায়িত্বটা একাই সামলেছেন বাটলার। দুর্দান্ত ইনিংসের জন্য প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হন রাজস্থানকে এক হাতে জেতানো জস বাটলার।

এই জয়ে ১১ ম্যাচ শেষে রাজস্থানের পয়েন্ট ১০। যদিও তারা ৬ নম্বরে। কিন্তু ১০ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ এবং পঞ্চম স্থানে রয়েছে যথাক্রমে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস ও কলকাতা নাইট রাইডার্স। পরের ম্যাচগুলোতে এ দুই দল কোনো হোঁচট খেলেই ভাগ্য ভুলে যাবে রাজস্থানের।