বাজুয়া দলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন লাউডোব ফুটবল দল

0
651

আজিজুর রহমান,খুলনাটাইমস :

খুলনার দাকোপ উপজেলার কৈলাশগঞ্জ ত্রিমোহনী স্টেডিয়ামে আন্তঃ উপজেলা বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে লাউডোব ইউনিয়ন ফুটবল একাদশের মুখোমুখি হয় বাজুয়া ইউনিয়ন ফুটবল একাদশ দল।

বাড়িতে অপেক্ষা না করে রৌদ্রোজ্জ্বল দুপুরে ফুটবলপ্রেমী দর্শকেরা গ্যালারিতে আসতে শুরু করেন। সারিবদ্ধ হয়ে মাঠের চারপাশ দখল করে দাঁড়িয়ে থাকে কিশোর থেকে শুরু করে নানা শ্রেনি বয়সের মানুষ। আগে গেলে সামনে জায়গা পাওয়া যায়। তাই দুপুরের খাওয়া দাওয়া শেষে উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে খেলা দেখতে আসেন শত শত দর্শকেরা। গ্যালারিভরা ফুটবলপ্রেমী দর্শকেরা বাঁশি বাজিয়ে আনন্দ-উল্লাসে মাতিয়ে তোলেন স্টেডিয়াম। খেলার বিশেষ আকর্ষণ ছিলেন নাইজেরিয়ান খেলোয়াড়।

বুধবার (২৪ অক্টোবর) বিকেল চারটার দিকে ৫০ মিনিটের ফাইনাল খেলা শুরু হয়। শুরুতে দুদল ছিল রক্ষণাত্মক। মিনিট চারেক পর শুরু হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। শুরুতেই আক্রমণাত্মক ছিল বাজুয়া ফুটবল একাদশ। তাদের ২১ নম্বর জার্সিধারী ইব্রাহিম নামের খেলোয়াড় ছিলেন আক্রমণের মধ্যমনি। কিন্তু আক্রমণ করে কোন ফল দেখাতে পারেনি বাজুয়া ফুটবল দল। ছয় মিনিটে লাউডোব ফুটবল দলের ৬নম্বর জার্সিধারি খেলোয়ার জহির মিডফিল্ডার থেকে দুর্দান্ত শট নেন। বাজুয়া ফুটবল দলের গোলরক্ষক অচিন্ত্য তা ঠেকাতে ব্যর্থ হন। এগিয়ে যায় লাউডোব ফুটবল দল। এরপর গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে ওঠে বাজুয়া ফুটবল দল। পাল্টা আক্রমণে যান তারা। প্রথম গোলের ঠিক পাঁচ মিনিট পর বাজুয়া ফুটবল দলের খেলোয়াড় ইব্রাহিম ডি-বক্সের ডান পাশ থেকে শট নেন। তাতে একটি গোল হয়ে যায়। চলতে থাকে দু’দলের সমান সমান লড়াই। এরেই মধ্যে লাউডোবের ১১ নম্বর জার্সিধারি খেলোয়াড় সাদ্দাম হোসেন প্রতিপক্ষ দলের পা থেকে বল কৌশলে কাটিয়ে নিতেই ডি-বক্সের ভিতরে ফাউল করেন। তাতে বাজুয়া দল একটি ফ্রিশটের (পেনাল্টি) সুযোগ পায়। কিন্তু তা গোলবারের বাম পাশ দিয়ে চলে যায় বাহিরে। পরে আবারও শট নেন ইব্রাহিম। তাতে লাউডোব ফুটবল দলের গোলরক্ষক কবিজ ফিরিয়ে দেন একাধিক শট। তবে হতাশ হননি দু’দলের খেলোয়াড়েরা। আক্রমণ চালিয়ে গেছে তারা। প্রথমার্ধে এক-এক গোলে এগিয়ে যায় দু’দলের খেলোয়াড়েরা।

বিকেল সাড়ে চারটার দিকে শুরু হয় দ্বিতীয়ার্ধের খেলা। তখনো খেলার মাঠে ও গ্যালারিতে রোদের উত্তাপ্ত। সঙ্গে ভ্যাপসা গরম। তবুও দর্শকের উল্লাস থেমে থাকেনি। পাল্টাপাল্টি আক্রমণের মধ্যদিয়ে খেলা এগিয়ে চলে। দু’দলের খেলোয়াড়েরা গোল করতে বারবার বল নিয়ে ছুটে যান প্রতিপক্ষের গোলবারে। কিন্তু দু’দলের গোলরক্ষক দক্ষতার সঙ্গে তা প্রতিরোধ করেন। দ্বিতীয়ার্ধের ৩৯ মিনিটে আবারও গোলের দেখা পায় লাউডোব ফুটবল দল। বাজুয়ার খেলোয়াড়েরা পাল্টা আক্রমণে গেলেও গোলের দেখা পায়নি। এরমধ্য দিয়ে শেষ হয়ে যায় আন্তঃ উপজেলা বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট। বাজুয়া ইউনিয়ন ফুটবল একাদশকে ২-১ গোলে হারিয়ে লাউডোব ইউনিয়ন ফুটবল একাদশ দল চ্যাম্পিয়ন হয়।

এরপরে টুর্নামেন্টের পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করে কৈলাশগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মিহির মন্ডল। উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ আবুল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল ওয়াদুদ, অফিসার ইনচার্জ মো. মোকাররম হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান সরোজিৎ রায়, সুদেব কুমার রায়, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রতন মণ্ডল, প্রগতি মানসিক রোগ ও মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিধান বিশ্বাসসহ আরও অনেকে। চ্যাম্পিয়ন লাউডোব ইউনিয়ন ফুটবল একাদশ দলের তত্বাবধায়ক ইউপি চেয়ারম্যান সরোজিৎ রায়ের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ আবুল হোসেন।