বাগেরহাট-৩ আসনে হাবিবুন নাহার সংসদ সদস্য নির্বাচিত

0
463

বাগেরহাট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় নারী প্রার্থী হাবিবুন নাহার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।
সোমবার বিকালে বাগেরহাটের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান তালুকদার আনুষ্ঠানিকভাবে খুলনা সিটি করপোরেশনের সদ্য বিজয়ী মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের স্ত্রীকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। হাবিবুন নাহার এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন।
গত ২৪ মে হাবিবুন নাহার নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে তা জমা দেন। এই আসন থেকে নির্বাচন করতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চিত্রনায়ক ও ব্যবসায়ী মো. শাকিল আহসান ওরফে শাকিল খান আগ্রহ দেখিয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও পরে তিনি আর তা জমা দেননি।
এর আগে গত ২২ মে নির্বাচনে অংশ নিতে জেলা নির্বাচন কার্যালয় থেকে হাবিবুন নাহারের পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন জেলা তাঁতীলীগের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর তালুকদার আব্দুল বাকী।
খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বাগেরহাট-৩ আসনের সংসদ সদস্য তালুকদার আব্দুল খালেক রামপাল-মংলা আসন থেকে পদত্যাগ করে খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে অংশ নিলে ওই আসনটি শূন্য হয়। তার ছেড়ে আসনে তার স্ত্রী হাবিবুন নাহারকে মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ। এর আগে হাবিবুন নাহার ২০০৮ সালে এই আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।
হাবিবুন নাহার ঢাকাটাইমসকে বলেন, এই আসনটি আওয়ামী লীগের দুর্গ বলে পরিচিত। এখানে দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগ বিপুল ভোটে জয়লাভ করে আসছে। আমার প্রতিপক্ষ বিরোধী দলগুলো এখানে পরাজিত হওয়ার আশংকায় নির্বাচনে অংশ নেয়নি। আমি বিগত দিনেও এই আসনের সাংসদ ছিলাম। আবার নির্বাচিত হওয়ায় এই আসনের অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজগুলো সমাপ্ত করার অঙ্গীকার করেন তিনি।
নির্বাচন কমিশনের আঞ্চলিক কর্মকর্তা ও এই নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান তালুকদার সাংবাদিকদের বলেন, বাগেরহাট-৩ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী হাবিবুন নাহারের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় তাকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করছি।
আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে অন্য প্রার্থী থাকলে আগামী ২৬ জুন এই আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।
রামপাল ও মোংলা উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে বাগেরহাট-৩ আসন গঠিত। এখানে নারী-পুরুষ মিলিয়ে মোট ভোটার দুই লাখ ২৬ হাজার ২৪৯ জন। এখানে কেন্দ্র সংখ্যা ৯০টি।

প্রতিনিধি