বাংলাদেশ যুব গেমসের ৩য় দিনে ৪টি ইভেন্টের খেলা অনুষ্ঠিত

0
394

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনাটাইমস:
বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের আয়োজনে বাংলাদেশ যুব গেমসের তৃতীয় দিনে বুধবার খুলনা বিভাগীয় পর্যায়ে মোট ৪টি ইভেন্টের খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এগুলো হলো দাবা, পুরুষদের ফুটবল, এ্যাথলেটিক্স ও বক্সিং।
ফুটবলে ঝিনাইদহ জেলা স্টেডিয়ামে প্রথম সেমিফাইনালে ঝিনাইদহ টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে মাগুরা জেলাকে পরাজিত করে ফাইনালে উন্নীত। নির্ধারিত সময়ে খেলাটি ২-২ গোলে ড্র ছিলো। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে খুলনা টাইব্রেকারে ৫-৪ গোলে যশোর জেলাকে হারিয়ে ফাইনালে উন্নীত। এর ফলে ফাইনালে উঠেছে খুলনা ও ঝিনাইদহ জেলা।
এ্যাথলেটিক্সে ভেন্যু নড়াইল জেলা স্টেডিয়ামে তরুণ শাখায় তিনটিতে নড়াইল প্রথম, কুষ্টিয়া দু’টিতে প্রথম। ১০০ মিটার দৌড় : প্রথম কুষ্টিয়ার শাওন। দ্বিতীয়-খুলনার রামিম হোসেন। ২০০ মিটার দৌড় : খুলনার রামিম হোসেন। রানার আপ কুষ্টিয়ার শাওন হোসেন। ৪০০ মিটার দৌড় : প্রথম সাতক্ষীরার জাহিদুল ইসলাম। দ্বিতীয় আপ খুলনার সুরুজ মিয়া। লং জাম্প : প্রথম নড়াইলের সুমন। দ্বিতীয় কুষ্টিয়ার মাসুদ রানা। ডিসকাস থ্রো : প্রথম নড়াইলের আলী আহমেদ। দ্বিতীয় নড়াইলের আলী হাফিজ। হাই জাম্প : প্রথম কুষ্টিয়ার মাসুদ রানা, দ্বিতীয় নড়াইলে আমিনুল ইসলাম। শর্টপুর্ট : প্রথম নড়াইলের হাফিজুর রহমান, চুয়াডাঙ্গার মামুন।
তরুনী শাখায় নড়াইল ৩টিতে প্রথম, কুষ্টিয়া ২টিতে প্রথম। ১০০ মিটার দৌড় : প্রথম নড়াইলের সুচিতা, দ্বিতীয় নড়াইলের সুস্মিতা। ২০০ মিটার দৌড় : প্রথম কুষ্টিয়ার আরভিনা, দ্বিতীয় নড়াইলের রুমা খাতুন। ৪০০ মিটার দৌড় : প্রথম কুষ্টিয়ার আরজিনা, দ্বিতীয় নড়াইলের রুমা খাতুন। লং জাম্প : প্রথম যশোরের সুইটি, দ্বিতীয় কুষ্টিয়ার তানভীন। হাই জাম্প : প্রথম নড়াইলের কাজল, দ্বিতীয় যশোরের হজেরা খাতুন। শর্ট পুর্ট : প্রথম যশোরের মুক্তা খাতুন, দ্বিতীয় ঝিনাইদহের জোয়ারিনা। ডিসকাস : প্রথম নড়াইলের নমিতা, দ্বিতীয় ঝিনাইদহের জয়িতা।
খুলনা জেলা স্টেডিয়ামে দাবা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। অনূর্ধ্ব-১৭- চ্যাম্পিয়ন-মাগুরার মো: নাজমুস সাকিব। রানার্স চুয়াডাঙ্গার নাইমুর রহমান। অনূর্ধ্ব-১৭ তরুনী- চ্যাম্পিয়ন মাগুরার ফারিয়া সুমনা। রানার্স আপ কুষ্টিয়ার দেবালিলা মাধূরী। অনূর্ধ্ব-১৩-বালক-চ্যাম্পিয়ন কুষ্টিয়ার উৎসব সেন। রানার আপ সাতক্ষীরার মো: ইয়ামিনুল ইসলাম।
যশোর ভেন্যুতে বক্সিং প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। তরুন : ৬০ কেজি ওজন শ্রেনীতে প্রথম যশোরের ফেরদৌস, দ্বিতীয় মাগুরার সাগর কর্মকার। ৫৬ কেজি ওজন শ্রেনীতে যশোরের ইমন হোসেন, দ্বিতীয় নড়াইলের এজাজ শেখ। ৫২ কেজি ওজন শ্রেনীতে প্রথম যশোরের সবুজ রহমান, দ্বিতীয় নড়াইলের রাইসুল ইসলাম।
তরুনী : ৫১ কেজি ওজন শ্রেনীতে প্রথম মাগুরার তানজিলা আক্তার, দ্বিতীয় যশোরের রাবেয়া আক্তার। ৪৮ কেজি ওজন শ্রেনীতে প্রথম যশোরের নুরুন নাহার, দ্বিতীয় মাগুরার সেলিনা আক্তার। ৪৪ কেজি ওজন শ্রেনীতে প্রথম মাগুরার সায়মা জান্নাত, দ্বিতীয় যশোরের মুক্তা খাতুন।