বর্তমান সরকারের আমলে মাগুরখালী উন্নয়নে শীর্ষে : মৎস মন্ত্রী

0
528

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি, খুলনাটাইমস:
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি বলেন, ডুমুরিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চল মাগুরখালী ইউনিয়নে বর্তমান সরকারের আমলে উন্নয়নে শীর্ষে রয়েছে। এ অঞ্চলে রাস্তা-ঘাট, মসজিদ-মন্দির, ব্রীজ-কালভার্ট, বিদ্যুৎ, নদী-খাল খননসহ বিভিন্ন উন্নয়নে প্রায় এক’শ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এক সময় মাগুরখালীর রাস্তা-ঘাট এতো অনুন্নত ছিলো যে পায়ে হেটেও চলাচল করা যেতনা। তখন নৌকাই ছিলো একমাত্র যোগাযোগের ব্যবস্থা। বর্তমান ওইসব রাস্তাঘাটগুলো এখন কার্পেটিং দ্বারা উন্নয়ন করা হয়েছে।

শনিবার বিকালে মাগুরখালী ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে গনসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মাগুরখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আয়োজনে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় মন্ত্রী বলেন, মাগুরখালী আমার কাছে অত্যন্ত প্রিয়নাম। এখানকার মানুষের সাথে আমার নাড়ির সম্পর্ক। আমি ভালো বেশেছি আপনাদের, তাইতো আপনারাও আমাকে ভালোবেশে বারবার নির্বাচিত করেছেন। আজ আপনাদেরই অবদানে আমি এপর্যন্ত পৌঁছেছি। আমি এলাকাবাসীর কাছে চিরঋণি।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান বিমল কৃষ্ণ সানার সভাপতিত্বে মন্ত্রী আরো বলেন, এ এলাকায় একসময় বহিরাগতরা এসে জোর করে লীজ ঘের করতো। রাতে পার্টি ছিলো, মাস্তান বাহিনীও ছিলো। এখন আর সেসব নাই। আর কখনো সন্ত্রাসী বাহিনী মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারবে না।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার সু-পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশকে উন্নয়নের মডেল হিসেবে গড়ে তুলছে। আজ উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে হলে নেতাকর্মীদেরকে ঐক্য হয়ে একসাথে কাজ করতে হবে। সকল ভেদাভেদ ভুলে ইউনিটি বজায় রাখতে হবে। কারণ আমাদের যারা প্রতিপক্ষ তারা স্বাধীনতার ঘাতক। নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনার আহবান জানান তিনি।

এসময়ে বক্তব্যদেন অবঃ অধ্যক্ষ নিরঞ্জন কুমার মল্লিক, থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিল হোসেন, এসআই রনজিত কুমার সরকার, শিক্ষক কুমুদ রঞ্জন সরকার, নির্মল কান্তি বিশ্বাস, মুক্তিযোদ্ধা বিমল কৃষ্ণ রায়, আ’লীগ নেতা সরোজ কান্তি রায়, শিবপদ মল্লিক, প্রভাষক ব্রজেন মন্ডল, মাইকেল রায়, শংকর সরদার, কৃষ্ণপদ মন্ডল, সুকৃতি মন্ডল, হাফেজ মাওলানা রুহুল আমীন প্রমুখ। এসময়ে এলাকার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, চন্ডীপুর মাতৃসংঘ, ওয়ার্ড আ’লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে মন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।