বটিয়াঘাটায় মসজিদ নির্মাণের জমি জোরপূর্বক দখল চেষ্টার অভিযোগ

0
26

নিজস্ব প্রতিবেদক:
খুলনা জেলার বটিয়াঘাটায় মসজিদ নির্মাণের জন্য ক্রয়কৃত জমি জোরপূর্বক দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া দখলে ব্যর্থ হয়ে অভিযুক্তরা জনৈক নূর ইসলামকে জীবননাশের হুমকি ও নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে। বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) খুলনা জেলা প্রশাসকের কাছে অবৈধভাবে মসজিদের জায়গা দখল প্রসঙ্গে অভিযোগপত্র জমা হলে এই তথ্য উঠে আসে।
অভিযোগের অনুলিপি পুলিশ সুপার, র‌্যাব-৬ অধিনায়ক, বটিয়াঘাটা সহকারী কমিশনার (ভূমি), বটিয়াঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ, খুলনা প্রেসক্লাব ও বটিয়াঘাটা প্রেসক্লাব সভাপতি/সম্পাদকের কাছে পাঠানো হয়।
সূত্রমতে, বটিয়াঘাটায় জলমার শান্তিনগর নিবাসী মৃত: মোহাম্মদ আলী খাঁ’র ছেলে মো: নূর ইসলাম একই এলাকার রাঙ্গেমারী মৌজায় রহিমসড়কে ৩ কাঠা জমি মসজিদ নির্মাণের জন্য ক্রয় করেন। ওই এলাকার তেতুলতলা গ্রামের তানজের হাওলাদারের ছেলে কায়েম হাওলাদারের কাছ থেকে এই জমি ক্রয় করা হয়, যার দলিল নং- ৪৮৩১/২০১৯ইং। পরে জমিটি তিনি ওয়াকফে রেজিস্ট্রি করেন (যার দলিল নং ৫৫৫২/২০২১ইং)। এরপর ওই স্থানে মোহাম্মদ আলী জামে মসজিদ নাম দিয়ে এলাকাবাসীর নিকট থেকে সাহায্য-সহযোগিতা রশিদের মাধ্যমে গ্রহণ করে বালু ভরাট শেষে সাইনবোর্ড বসিয়ে দেয়া হয়।
অথচ লবণচরা থানার মোহাম্মদনগরের বাসিন্দা হান্নান শেখের ছেলে মোস্তফা বেলাল, মৃত: আ: মালেক গাজীর ছেলে আতিকুর রহমান আতিয়ার এবং আতিকুর রহমানের ছেলে মিরাজুল হাসান জোরপূর্বক মসজিদের সাইনবোর্ড উপড়ে ফেলে। সেখানে ঘর নির্মাণের চেষ্টা করলে এলাকাবাসীর বাধায় তারা ব্যর্থ হয়। পরে পুলিশের সহযোগীতায় তারা ওই স্থান ত্যাগ করে। এনিয়ে বটিয়াঘাটা থানায় মীমাংসার জন্য বসা হলেও তারা কোন প্রকার কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। এরপর থেকে অব্যাহত প্রাণনাশের হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে যাচ্ছে অভিযুক্তরা। রাঙ্গেমারী মৌজায় জেএল নং-১৪, খতিয়ান: আরএস-১৯৩, দাগ নং-২৩৬৫, তিন কাঠা মসজিদের জমি বেদখল না হয়, তার যথাযথ ব্যাবস্থা গ্রহণে সংশ্লিষ্টদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন নুর ইসলাম।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here