ফুলতলায় রাজাকার মোখলেছ কর্তৃক জমি দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

0
424

ফুলতলা প্রতিনিধিঃ- সোমবার ফুলতলা প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে কৃষি ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমান ও ফুলতলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এস এম মোস্তাফিজুর রহমান ২ জন এক লিখিত সংবাদ সম্মেলনে জানান, গত ৭ অক্টোবর খুলনা প্রেসক্লাবে শামিম সরদার আমাদের বিরুদ্ধে জমি দখল ও চাকুরীতে ক্ষতিগ্রস্থসহ যে সকল অভিযোগ উত্থাপন করেছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। আমাদের সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যে এই সংবাদ সম্মেলন করেছে।
সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে তারা উল্লেখ করেন, উল্লেখিত জমি-জমা খুলনা জেলার ফুলতলা উপজেলার আলকা মৌজায় জরিপে এস.এ রেকর্ডীয় মালিক আবু বক্কর বিশ্বাস, পিং- হাশেম আলী বিশ্বাস জমি জমাতে ভোগ দখল থাকা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করিলে ১ স্ত্রী রাবেয়া খাতুন, ১ কন্যা সখিনা খাতুন ও ১ বোন গোলাপী বেগমকে ওয়ারিশ হিসাবে রেখে যান। স্ত্রী রাবেয়া খাতুন ও কন্যা সখিনা খাতুন জমি জমাতে ভোগ দখল থাকা অবস্থায় রাবেয়া খাতুন মৃত্যুবরন করিলে একমাত্র কন্যা সখিনা খাতুনকে ওয়ারিশ হিসাবে রাখিয়া যান। প্রাপ্ত সম্পত্তি সখিনা খাতুন শন্তিপূর্ণ ভোগ দখলে থাকা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করিলে ৪ পুত্র ও ১ কন্যা যথাক্রমে পুত্র ১) মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান সরদার ২) মোঃ হাফিজুর রহমান সরদার। ৩) মোঃ মফিজুর রহমান সরদার, ৪) আঃ হালিম সরদারের ও কন্যা ৫) খোদেজা বেগমকে রেখে যান। সখিনা খাতুনের মৃত্যুর পর হইতে তারই দখলকৃত ফুলতলা উপজেলার আলকা মৌজার ৩ একর ৩২ শতাংশ সম্পত্তি বর্তমান তার ওয়ারেশগণ শন্তিপূর্ণভাবে ভোগ-দখলে আছেন এবং হাল বাংলা ১৪২৫ সন পর্যন্ত ভুমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করিয়াছেন।
প্রকাশ থাকে যে, ভুমিদস্যু মোকলেজ সরদার এস.এ রেকর্ডীয় মালিক আবু বক্কর বিশ্বাস এর কোন ওয়ারিশ/শরিক নহে। তার জন্মস্থান যশোর জেলার চাউলিয়া গ্রামে। সে একসময় উল্লেখিত জমির চাষাবাদের দেখশোনা করতেন। পরবর্তীতে জাল জালিয়াতি সৃষ্ট দলিল করিয়া মামলা ও জমি দখলে লইবার জন্য উল্লেখিত মামলা দায়ের করিয়াছেন।
একাত্তরের খুলনার ভুতের বাড়িতে প্রক্ষিণপ্রাপ্ত কুখ্যাত রাজাকার মোকলেজ সরদারের সৃষ্ট তঞ্চকি জাল-জালিয়াতি দুটি দলিল বাতিলের মামলা সিনিয়র সহকারি জজ আদালত ফুলতলা, খুলনায় চলমান যার নং- ৭৭/১৮, তারিখঃ ২৯/০৭/২০১৮ ইং বাদি গোলাপী বেগমের ওয়ারেশ লুৎফর রহমান দিগর ও ৯৪/১৮, তারিখঃ ২৭/০৮/২০১৮ ইং বাদি সখিনা খাতুনের ওয়ারেশ এস এম মোস্তাফিজুর রহমান দিগর।