ফকিরহাট শেখ হেলাল উদ্দীন কলেজে নবনির্মিত ভবনের উদ্ভোধন সোমবার

0
937

এম জাকির হোসেন, ফকিরহাট থেকে ঃ
বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার শুভদিয়া ইউনিয়নে অবস্থিত শেখ হেলাল উদ্দীন ডিগ্রি মহাবিদ্যালয়ে সাড়ে ৮কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত ভবন গুলোর উদ্ভোধন ৮ জানুয়ারী সোমবার হতে যাচ্ছে। তিন উপজেলার অবহেলিত জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে শিক্ষাকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করায় দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন আজ বাস্তবায়িত হয়েছে। অবকাঠামোগত উন্নয়ন সহ শিক্ষার এ-ধারা অব্যাহত রাখলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বির্নিমানে বেশি দিন অতিবাহিত করতে হবে না। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, উপজেলার শেষ প্রান্তে অর্থাৎ শুভদিয়া শেখ হেলাল উদ্দীন ডিগ্রি মহাবিদ্যালয়টি ২০০০সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়। সেই বছরের ৩০জুন তৎকালিন দুযোর্গ ব্যাবস্থাপনা ও ত্রান মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী তালুকদার আব্দুল খালেক ও কলেজ প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি স্বপন দাশ সহ এলাকার কয়েকজন বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী সাইন র্বোড উত্তোলনের মাধ্যমে এর উদ্ভোধন করেন। উদ্বোধনের সময় এলাকাটি ছিল শিক্ষা বিহীন একটি জনপদ। তারপর কলেজটি হাটি হাটি পা পা করে এখন একটি পূর্নাঙ্গ কলেজে পরিনত হয়েছে। বর্তমানে কলেজটিতে প্রায় ১২শত শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত রয়েছে। ফকিরহাট রামপাল ও বটিয়াঘাটা এই তিন উপজেলার নিরক্ষর অবহেলিত জনগোষ্ঠির ভাগ্য উন্নয়নে শিক্ষাকে অধিক গুরুত্ব দিয়েই কলেজটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। যা এলাকাবাসীর ছিল দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন যা আজ বাস্তবায়িত হয়েছে।
উপজেলা আ’লীগের সভাপতি, শেখ হেলাল উদ্দিন কলেজের সভাপতি ও বেতাগা ইউপি চেয়ারম্যান স্বপন দাশের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, বাগেরহাট-১ আসনের সাংসদ সদস্য জননেতা শেখ হেলাল উদ্দীনের একান্ত প্রচেষ্টা আর তার অর্থায়নে কলেজটি আজ দন্ডায়মান হয়েছে। শত শত গরীব মেধাবী শিক্ষার্থীরা এখানে লেখাপড়া করছে। যেখানে অতিতে জনমানুষ শুন্য একটি ভুতুড়ে এলাকায় পরিনত ছিল। সেখানে আজ একটি আলোকিত জনগোষ্ঠি সৃষ্টি হয়েছে। ভোর হতে বিকাল পর্যন্ত শিক্ষক শিক্ষার্থীদের পদচরনায় সমগ্র এলাকা মুখরিত। যা সত্যিই একটি বিরল দৃষ্ঠান্ত। এটি ভাবা যায় না। কলেজ সুত্রে জানা গেছে, আজ ৮ জানুয়ারী সোমবার বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য জননেতা শেখ হেলাল উদ্দীন কলেজের ৫টি নির্মিত ভবন উদ্ভোধন ও ১টি একাডেমিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। উদ্ভোধনের মধ্যে রয়েছে, প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা ব্যয়ে এলজিইডি নির্মিত তিন তলা সাইক্লোন সেন্টার কাম একাডেমিক ভবন, আড়াই কোটি টাকা ব্যয়ে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক নির্মিত চার তলা আইসিটি ভবন যেখানে আইসিটি ল্যাব সহ রয়েছে সকল প্রকার ডিজিটাল সুবিধা, ৭০লক্ষ টাকা ব্যয়ে দ্বিতল প্রশাসনিক ভবন, ২৫লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত শহীদ মিনার যেখানে রয়েছে ভাষা আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত ইতিহাস সম্বলিত টেরাকোটার কাজ, সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন প্রকল্প তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এর শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব যেখানে ২৬টি কম্পিউটার সহ ইন্টারনেটের সকল সুযোগ সুবিধা রয়েছে। এছাড়া ৪তলা বিশিষ্ট ১টি একাডেমিক ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন বলেও জানা গেছে।
কলেজ অধ্যক্ষ বটুগোপাল দাস এর সাথে আলাপ করা হলে তিনি বলেন, মাননীয় সংসদ সদস্য জননেতা শেখ হেলাল উদ্দীনের কলেজে আগমন উপলক্ষ্যে কলেজকে নানা ভাবে সজ্জি¦ত করা হয়েছে। তিনি কলেজে আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রথম বারের মতো আসছেন। এমপি মহোদয়ের সহধর্মিনী রুপা চৌধুরী তার সফর সঙ্গী হবেন। অবহেলিত নিরক্ষর জনগোষ্ঠি কে একটি আলোকিত অঞ্চল ও আলোকিত মানুষের মত মানুষ হিসাবে গড়ে তুলার লক্ষ্যে জননেতা শেখ হেলাল উদ্দীনের নামে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। যা এ অঞ্চলের জনমানুষের প্রাণের একটি দাবী ছিল। সেটি অনেকাংশ জননেতা শেখ হেলাল উদ্দীন পূরণ করতে সক্ষম হয়েছেন। তার এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকলে এই কলেজকে কেন্দ্র করে একটি নতুন সভ্যতা গড়ে উঠবে বলেও তিনি আশাবাদী। এদিকে তার আগমন উপলক্ষ্যে অত্র কলেজ এলাকা সহ বিভিন্ন এলাকার মোড়ে মোড়ে, সড়কে তোরণ, প্যানা, ফেষ্টুনে ছেয়ে গেছে। এছাড়াও ৯ জানুয়ারী বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।