ফকিরহাটে আওয়ামী লীগ নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলা আটক ২

0
303

ফকিরহাট প্রতিনিধি:
বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার পিলজংগ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, শহীদ স্মৃতি ডিগ্রী মহা-বিদ্যালয়ের প্রভাষক এবং পিলজংগ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অঞ্জন কুমার দে (৪০)-কে সন্ত্রাসীরা পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে। আহত-কে গুরুত্বর জখম অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। এঘটনায় মডেল থানা পুলিশ অভিযুক্ত জলিল মোড়ল ও জুলফিক্কার মোড়ল নামের দুই সন্ত্রাসীকে আটক করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় পিলজংগের কাঠালতলা এলাকায়। ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা জানায়, উক্ত এলাকায় জমাজমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে জলিল মোড়ল ও মিন্টু শেখ এর সাথে নারকেল পাড়া নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এসময় সংর্ঘষ এড়াতে প্রভাষক অঞ্জন কুমার দে তাদের বাধা সৃষ্টি করেন। এতে জলিল মোড়ল, মোজাম মোড়ল ও জুলফিকার মোড়ল সহ ৫/৬মিলিত হয়ে অঞ্জনের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে তাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করে তার কাছে থাকা নগত টাকা স্বর্ণের চেইন ও অংটি সহ মূল্যবান মালামাল নিয়ে দ্রæত পালিয়ে যায়। এতে সে গুরুত্বর রক্তাক্ত জখমপ্রাপ্ত হলে স্থানীয়রা তাকে মুমুর্য অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘটনার সময় অঞ্জনের সাথে থাকা যুবলীগ নেতা জয়দেব কুমার দে সহ আরও ৫/৬জন শারীরিক ভাবে লাঞ্চিতও হয়েছেন। এ ঘটনায় মডেল থানা পুলিশের উপ-পুলিশ পরির্দশক (এসআই) দিপাংকর কুমার মন্ডল অভিযুক্ত আঃ জলিল মোড়ল ও জুলফিকার মোড়লকে এলাকায় অভিযান চালিয়ে আটক করেছেন। অঞ্জন কুমার দে পিলজংগ গ্রামের মূতঃ রতন কুমার দে’র পুত্র। এরিপোট লেখা পর্যন্ত মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। ঘটনার খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি স্বপন দাশ, সাধারন সম্পাদক শিরিনা আক্তার, ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মুস্তাহীদ সুজা সহ অসংখ্য দলীয় নেতাকর্মিরা তাকে হাসপাতালে দেখতে ছুটে যান।