প্রত্যাশার চেয়েও ভালো খেলেছেন নেইমার!

0
242

স্পোর্টস ডেস্কঃ

নেইমারের কাছে এত ভালো খেলা প্রত্যাশা করেননি তিতেনেইমারের কাছে এত ভালো খেলা প্রত্যাশা করেননি তিতে
সদ্যই চোট থেকে ফিরে ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপ খেললেন নেইমার, ব্রাজিলকে নিয়ে গেছেন কোয়ার্টার ফাইনাল অবধি। চোট সারিয়ে বিশ্বকাপ খেলতে আসা নেইমারের কাছ থেকে এত ভালো পারফরম্যান্স!

ফেব্রুয়ারি মাসে ফ্রেঞ্চ লিগে মার্শেইয়ের বিপক্ষে ম্যাচে পায়ের চোটে পড়েছিলেন নেইমার। সে এক ভীতিকর অবস্থা! শঙ্কা জেগেছিল তাঁর বিশ্বকাপ খেলা নিয়েই। ব্রাজিল তাদের ফুটবলের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপনকে দেশে রেখে ‘হেক্সা’ মিশনে যাবে—এটা কেউ মেনে নিতে পারছিলেন না। সমর্থকদের আশার ভেলায় ভাসিয়ে ঠিকই বিশ্বকাপের আগে আগেই চোটমুক্ত হন নেইমার, খেলতে আসেন বিশ্বকাপে। বিশ্বকাপের আগে ক্রোয়েশিয়া ও অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে দুটি ম্যাচে ঝলক দেখিয়েছিলেন। তাঁর পারফরম্যান্সে প্রতিশ্রুতি ছিল বিশ্বকাপে দুর্দান্ত এক নেইমারকে দেখার। কিন্তু সেটি আর হলো কোথায়। বিশ্বকাপে নেইমার থাকলেন তাঁর ছায়া হয়েই।

কোয়ার্টার ফাইনালেই বেলজিয়ামের কাছে ২-১ গোলে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে ব্রাজিলের। হেরে গেলেও নেইমারের এই দলের প্রতি এই আত্মনিবেদন মুগ্ধ করেছে কোচ তিতেকে। নেইমার এত ভালো খেলবেন চোট থেকে ফিরে এসে, এটা নাকি প্রত্যাশাই করেননি তিনি, ‘মেক্সিকোর বিপক্ষেই ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছে নেইমার, সেই ম্যাচের পর আমি ওকে বলেছিলাম, তুমি এখন তোমার সেরা ফর্মে আছ। কারণ, তুমি এখন ঠিকঠাকভাবে বুঝতে পারছ, তোমার মন কখন কী ভাবছে আর তোমার শরীর কীভাবে সাড়া দিচ্ছে। ড্রিবলিং, শট নেওয়া, গতি—চোট থেকে ফিরে এসেই নেইমার আবার সেই আগের রূপে ফিরে যাচ্ছিল।’
নেইমারের এমন পারফরম্যান্স নাকি প্রত্যাশাই করেননি তিতে, ‘নেইমার যেভাবে এই বিশ্বকাপে খেলেছে, সত্যি বলতে কি, চোট থেকে ফিরে এসে সে যে এত ভালো খেলবে, এটা আমি নিজেও প্রত্যাশা করিনি। এমনিতেই সে অনেক প্রতিভাবান খেলোয়াড়, অনেক বেশি গতিশীল।’
কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত ৫ ম্যাচ খেলে দুটি গোল আর একবার গোলে সহায়তা করেছেন নেইমার। কে জানে, ফাইনাল পর্যন্ত গেলে হয়তো এই নেইমারের ঝলক আরও বেশি করে দেখা যেত। কিন্তু তা হলো না। হলো না ফেলাইনি-ভার্তোনে-কম্পানি-অল্ডারভেইরেল্ডের উদ্যমী ফুটবলের কারণেই। বেলজিয়ামের বিপক্ষে সেই নেইমার-ঝলক আর দেখা যায়নি। পুরো ম্যাচেই নেইমারের কাছ থেকে জাদুকরি একটি-দুটি মুহূর্ত দেখার জন্য উন্মুখ হয়ে ছিলেন তাঁর ভক্তরা।
নেইমার তাঁদের নিরাশই করেছেন!