প্রতিবন্ধী কায়সারের জীবনে আলো ফিরিয়ে দিলেন এমপি মিজান

0
923

সুমন আহমেদ:
পঞ্চাশ উর্ধ্বো কায়সার মিয়া। একজন শারীরিক প্রতিবন্ধি। তবুও জীবন যুদ্ধে দমে যাননি। আরবি শিক্ষায় পড়াশুনা করেছেন। পাশাপাশি প্রায় সব ধরনের কাজের অভিজ্ঞতাও আছে তার। তবে চার দেয়ালের মাঝেই সীমাবদ্ধ কায়সারের জীবন। ঘরের বাইরে খুব একটা পা রাখেন না। কারণ অন্যের উপর নির্ভরশীলতা হতে চান না। ফলে এলাকার ছেলে-মেয়েদের আরবি পাঠ করিয়ে ব্যস্ত সময় পার করেন তিনি। সর্বোপরি নিজ মহল্লায় কায়সার ভালো ও পরোপকারী মানুষ হিসেবে পরিচিতি রয়েছে তার।
খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান, ২০ সেপ্টেম্বর খালিশপুর নিবাসী ফটো সাংবাদিক আরজি উজ্জ্বল এর বাড়িতে বেড়াতে যান। তখন তিনি এলাকার বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখেন এবং সবার খোঁজ খবর নেন। এক পর্যায়ে সংসদ সদস্যকে অসহায় মানুষটির দূরাবস্থা দেখিয়ে একটা হুইল চেয়ার প্রদানের অনুরোধ জানানো হয়। কারন একটি হুইল চেয়ারই প্রতিবন্ধী কায়সারের স্বাভাবিক জীবনযাপন ফিরিয়ে দিতে পারবে। তাকে অন্যের উপর নির্ভরশীল হতে হবে না। নিজের কাজ নিজেই সম্পন্ন করতে পারবেন। অন্ধকারাছন্ন কায়সারের জীবনে আলোর দিশারী হয়ে উঠবে।
আজ বুধবার উল্লেখিত ঘটনার দিন পনের অতিবাহিত হয়েছে। তবে সেই বিষয়টি উপস্থাপনকারী সাংবাদিক ভুলে গেলেও ভোলেননি সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান। আজ দুপুরে সংসদ সদস্য ফের খালিশপুরে আসেন এবং তার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে ওই প্রতিভাবাপন্ন প্রতবন্ধীকে একটি হুইল চেয়ার উপহার দেন। এমন সময় মহল্লার সকলের মাঝে খুশির বন্যা বয়ে যায়। তবে কায়সারের চোখের কোণে অশ্রু থামেনি, বরং গড়িয়ে পড়েছে। এসময় কায়সার, তার পরিবার এবং এলাকাবাসী জনপ্রতিনিধির এমন কর্মকান্ডে উচ্ছ্বাসিত হয়ে তার দীর্ঘায়ু ও উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন। করেন মন খুলে তার জন্য দোয়াও।
ফটো সাংবাদিক আরজি উজ্জ্বল খুলনা টাইমস এর এই প্রতিবেদককে বলেন, আমি সহ আমাদের মহল্লার অনেকেই কায়সার ভাইয়ের কাছ থেকে আরবি শিক্ষা গ্রহন করেছি। আমার বাসভবনে আসার সুবাদে মিজান ভাইয়ের সাথে কায়সারের পরিচয় করিয়ে দেই এবং একটি আবদার পেশ করি। তবে আমি আনন্দিত। কারণ আমি ভুললে, শ্রদ্ধেয় মিজান ভাই বিষয়টি ভোলেননি। মিজান ভাইয়ের এমন সুন্দর উপহারে আমাদের কায়সার ভাই অত্যন্ত খুশি এবং আনন্দিত। চোখে-মুখে তার আনন্দের ছোঁপ ভাসছিল। সাথে তার পরিবার ও এলাকাবাসীরও। আমরা মহল্লাবাসী সকলেই মিজান ভাইয়ের সফলতা কামনা করছি।
উজ্জ্বল আরও বলেন, আগামী দিনে এমন জনপ্রতিনিধিই দরকার। তবেই জনগণ সকল সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবে। খুলনা-২ আসনের এমপি হওয়া সত্ত্বেও মিজান ভাই শুধুমাত্র তার আসনেই নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখেননি। বরং খুলনার সব মানুষের সেবায় সর্বদা নিয়োজিত রেখেছেন। তার এমন মহানুভবতায় আমরা সকলেই মুগ্ধ ও কৃতজ্ঞ। তাই ধন্যবাদ দিয়ে প্রাণপ্রিয় নেতাকে ছোট করতে চাই না। মহান আল্লাহতায়ালা সব সময় তাকে সুস্থ রেখে জনগণের পাশে থাকার সুযোগ দিক, এই প্রত্যাশা রাখছি।
উল্লেখ্য, এসময় সংসদ সদস্য মিজানের সাথে আরও উপস্থিত ছিলেন মহানগর যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মণিরুজ্জামান সাগর, মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেল, খালিশপুর থানা আওয়ামী লীগ ও দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।