পেশাগত দায়িত্ব পালনে সাংবাদিক লাঞ্ছিতের ঘটনায় নগর বিএনপি’র নিন্দা

0
356

নিজস্ব প্রতিবেদেক:
খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে অনিয়মের কারণে স্থগিত হওয়া ৩০ মে পুনঃনির্বাচনে নগরীর ইকবালনগর সরকারি বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে এমইউজে খুলনার সদস্য, দৈনিক প্রবাহের স্টাফ রিপোর্টার ও খুলনা টাইমস’র বিশেষ প্রতিনিধি কামরুল হোসেন মনি ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলী আকবর টিপু কর্তৃক লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন খুলনা মহানগর বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেছেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য সাংবাদিক কামরুল হোসেন মনি ইকবালনগর স্কুলের সামনে গেলে কাউন্সিলর আলী আকবার টিপু ভোট কেন্দ্রে ঢুকলে হাত-পা ভেঙ্গে ফেলার হুমকি প্রদান করেন। এ সময় তাকে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এমনকি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সামনে কর্তব্যরত সাংবাদিকদের ভোট কেন্দ্র থেকে বের হয়ে যাওয়ারও হুমকি দেন। যা স্বাধীন সংবাদ মাধ্যম ও সত্য সন্ধানী বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার অন্তরায়। সরকার সমর্থিত এই কাউন্সিলরের উদ্যত্তপূর্ণ আচরণ খুবই দুঃখজনক। এধরনের আচরণ থেকে বিরত থাকার জন্য আহবান জানান নেতৃবৃন্দ। সাংবাদিক কামরুল হোসেন মনিসহ খুলনায় কর্তব্যরত রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত সকল সাংবাদিকের নিরাপত্তায় পুলিশ প্রশাসনের সুদৃষ্টি রাখার আহবান জানিয়েছেন তারা।
বিবৃতিদাতারা হলেন- বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সাবেক সংসদ সদস্য এম নূরুল ইসলাম দাদুভাই, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর শাখার সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও কেসিসি মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি, মীর কায়সেদ আলী, মোঃ মুশাররফ হোসেন, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, সিরাজুল ইসলাম মেঝোভাই, স ম আব্দুর রহমান, এ্যাড. ফজলে হালিম লিটন, ফকরুল আলম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, শেখ আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু ও আসাদুজ্জামান মুরাদ প্রমুখ।