পুুলিশের পেশা দায়িত্ব বৃদ্ধি করতে প্রধানমন্ত্রী সবই করেছেন: দেবহাটায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

0
317

দেবহাটা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি:
দেবহাটায় নবনির্মিত থানা ভবন উদ্বোধন পরবর্তী সুধী সমাবেশে বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল (এমপি) বলেন, পুলিশ জনতা, জনতায় বন্ধু পুলিশ। পুুলিশের পেশা দায়িত্ব বৃদ্ধি করতে যা যা করা দরকার মাননীয় প্রধান মন্ত্রী তাই করেছেন। ১০ বছর আগের পুলিশ আর আজকের পুলিশ বাহিনী এক নয়। বর্তমান পুলিশের দক্ষতাবৃদ্ধি করে আধুনিক পুলিশ গড়তে শেখ হাসিনার সরকার নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাছাড়া বাংলাদেশ পুলিশ জঙ্গী, সন্ত্রাস দমন করে দেশের শান্তি রক্ষার মাধ্যমে বিশ্ববাসীর নিটক সুনাম অর্জন করেছে। দেশের মানুষ এখন নিরাপত্তা ও শান্তিতে ঘুমাতে পারে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া এ পুলিশ বাহিনী দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করে চলেছে। এছাড়া পুলিশের সেবা সাধারণ মানুষের দৌড়গোড়ায় পৌছে দিতে দেশের সকল থানায় অনলাইনের মাধ্যম চালু করা হয়েছে। তাই সাধারণ মানুষ যাতে করে আরো বেশি সেবা পেতে পারে সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন প্রান্তে পুলিশের জন্য নতুন ভবন নির্মান করে দিয়েছেন। তেমনি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেবহাটার মানুষের যানমালের নিরাপত্তার জন্য নতুন থানা ভবন নির্মান ও সেটি পুলিশিং কার্যক্রম পরিচালনার শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ নদীমার্তৃক দেশ। ইতিহাসে নদীকে কেন্দ্র করে সভ্যতা গড়ে ওঠে। ঠিক ইছামতি নদীর পাড়ে তৎকালিন সময় সভ্যতাক্রম বিকাশ হয়। যার ফলে এখানে বহু আলোকিত গুনি মানুষের জন্ম হয় এই দেবহাটায়। তাই সেই সুনাম যাতে করে নষ্ট না হয় সেদিকে আপনারা খেয়াল রাখবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে উন্নয়নের অগ্রযাত্রার সঙ্গী হয়ে এক সাথে কাজ করুন। তিনি আরো বলেন, দেশের শান্তি বিনষ্ট করতে ষড়যন্ত্রকারীরা ষড়যন্ত্র করে যাবেন। তাই তাদের রুখতে আমাদের হাতে হাত রেখে আগামী নির্বাচনে জাতির জনকের কন্যা জননেত্রীকে পুনরায় ক্ষমতায় আনতে নৌকা প্রতীকের জয় আনতে হবে। শনিবার বেলা ১২টায় দেবহাটা থানা নতুন ভবন উদ্বোধন ও সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য কালে তিনি এসব কথা বলেন। পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমানের সভাপতিত্বে সূধী সমাবেশে সম্মানিত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাবেক সফল স্বাস্থ্য মন্ত্রী অধ্যাপক আলহাজ্ব ডাঃ আ.ফ.ম রুহুল হক এমপি, সাতক্ষীরা সদর-২ আসনের সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহম্মেদ রবি, সংরক্ষিত সংসদ সদস্য মিসেস রিফাত আমিন-এমপি, খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহম্মেদ (বিপিএম), জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহম্মেদ, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন। সম্মানিত অতিথি ছিলেন সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য জগলুল হায়দার, সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য এড. মোস্তফা লুৎফুল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খুলনা কেএমপি’র কমিশনার হুসাইন কবির, অতিরিক্ত ডিআইজি মাহবুব রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মুজিবর রহমান, সাবেক সংসদ মোখলেছুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আসাদুজ্জামান বাবু, দেবহাটা উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল গনি, শ্যামনগর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল হক দোলন, তালা উপজেলা চেয়ারম্যান প্রণব ঘোষ বাবলু, আশাশুনি উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম, কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন, সাতক্ষীরা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরিফুল হক, এএসপি মেরিনা আক্তার, দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাফিজ-আল-আসাদ, দেবহাটা থানার ওসি কাজী কামাল হোসেন, কালিগঞ্জ থানার ওসি সুবীর দত্ত, সদর থানার ওসি মারুফ হোসেন, শ্যামনগর থানার ওসি আব্দুল মান্নান, পাটকেলঘাটা থানার ওসি মোল্লা জাকির হোসেন, কলারোয়া থানার ওসি বিপ্লব কুমার, আশাশুনি থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান রতন, দেবহাটা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলম খোকন, কালিগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী, দেবহাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও নওয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুজিবর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সখিপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ফারুক হোসেন রতনসহ বিভিন্ন আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, সাংবাদিক এবং বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ। সুধী সমাবেশ শেষে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী সড়ক পথে কালিগঞ্জ উপজেলার নলতায় খাঁন বাহাদুর আহ্ছান উল্লা (রঃ) এর মাজার জিয়ারত এবং জেলা পরিষদের অডিটরিয়ামে স্বর্ণ কিশোরীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহন করেন। অনুষ্ঠান শেষে নলতা কেন্দ্রীয় আহ্ছানীয়া মিশনে দুপুরে মধ্যহ্নভোজ বিকালে দেবহাটা উপজেলার দেবীশহর ফুটবল মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজিত এক জনসভায় অংশগ্রহন করেন তিনি। ##