পাইকগাছায় এনএসবি ইট ভাটা দখল নিয়ে দু’পক্ষই মুখোমুখি

0
234

পাইকগাছা প্রতিনিধি: পাইকগাছায় পুরাইকাটি¯’ এনএসবি ইট ভাটা দখল কর্তৃত্ব নিয়ে দু’পক্ষই মুখোমুখি অবস্থানে। পুলিশী হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ভাটা মালিক শাহিনুর রহমান প্রতিপক্ষ রেজাউল গংদের বিরুদ্ধে আপোষ মীমাংসার শর্ত ভঙ্গের অভিযোগ তুলেছেন। রবিবার সকালে ভাটার কর্তৃত্ব নিয়ে দু’পক্ষই মুখোমুখি হলে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ ঘটনায় দু’পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ তুলেছেন।
গদাইপুরের পুরাইকাটি গ্রামের মুনসুর সরদারের ছেলে এনএসবি ইট ভাটার মালিক শাহিনুর রহমান জানান, আমার ইটভাটাটি পরিচালনা করতে যেয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করতে গিয়ে এক পর্যায়ে ৩ কোটি টাকা ঋণগ্রস্থ হয়ে পড়ি। আমার দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে স্থানীয় রেজাউল ইসলাম গংরা ২০ লাখ টাকার বিনিময়ে আমার বাড়ী লিখে নেয়ার প্রস্তাব দিয়ে জোরপূর্বক ইট ভাটার পার্টনারশীপ লিখে নেয়। জানা গেছে, এ নিয়ে স্থানীয় পর্যায়ে শালিসী সভা সহ থানা পর্যন্ত গড়ালে একাধিকার বসাবসি হলেও সমস্যার সমাধান মেলেনি। সূত্র জানায়, গত বুধবার উপজেলা পর্যায়ের আওয়ামীলীগনেতাদের হস্তক্ষেপে দু’পক্ষের মধ্যে শালিসী বৈঠক হয়। এ বিষয়ে শাহিন আরো জানায়, শালিসী সভায় প্রতিপক্ষ রেজাউল গংরা একটি মিলে ১২ লাখ ইট পুড়িয়ে শনিবারের মধ্যে ভাটা ছাড়বেন বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ হয়। তিনি অভিযোগ করেন, রবিবার ১১টার দিকে আমি প্রতিপক্ষদের ভাটা ছাড়তে বললে তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে আমাকে জীবন নাশের হুমকি দেয়। এ ঘটনায় শাহিন বাদী হয়ে প্রতিকারের জন্য প্রতিপক্ষ রেজাউল ও তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন। এদিকে, এ ঘটনায় ভাংচুর ও ক্ষয়-ক্ষতির অভিযোগ তুলে রেজাউল ইসলাম বাদী হয়ে শাহিনুর রহমান সহ ১২জনের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দাখিল করেছেন। এ প্রসঙ্গে ওসি মোঃ এজাজ শফী জানান, ভাটার বিরোধে দু’পক্ষই থানায় অভিযোগ করেছেন। যা তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যব¯’া করা হবে।