পদ ছাড়তে সময় বেঁধে দেয়া হল রবার্ট মুগাবেকে

0
803

টাইমস ডেস্ক :
নিজের দল থেকেই বহিস্কৃত হন রবার্ট মুগাবে। রোববার নতুন নেতা এবং ২০১৮ সালের নির্বাচনের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে এমারসন এমনানাগাগওয়াকে মনোনিত করে ক্ষমতাসীন জানু-পিএফ পর্টি। সেইসাথে প্রেসিডেন্টের পদ ছাড়তে রবার্ট মুগাবেকে সোমবার বিকেল পর্যন্ত সময় দেয় তারা। তা না হলে পার্লামেন্টে অভিশংসনের মুখোমুখি করার হুমকিও দেয়া হয় চার দশকের শাসক মুগাবেকে।

দলীয় প্রধানের পদ থেকে প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবেকে বরখাস্তের ঘোষণার পর এভাবেই উল্লাসে মেতে ওঠেন ক্ষমতাসীন জিম্বাবুয়ে আফ্রিকান ন্যাশনাল ইউনিয়ন পেট্রিয়টিক ফ্রন্ট জানু-পিএফ পার্টির নেতারা।

মুগাবের সঙ্গে দেশটির ফার্স্ট লেডি গ্রেস মুগাবেও দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছিল গ্রেস মুগাবেকে ক্ষমতায় আনতেই সম্প্রতি দলীয় নেতৃত্বে রদবদল ঘটান রবার্ট মুগাবে। জানু-পিএফ পার্টির নতুন নেতা নির্বাচিত হয়েছেন, দুই সপ্তাহ আগে বরখাস্ত হওয়া সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাওয়াক।

প্রায় চার দশক ক্শতায় থাকা রবার্ট মুগাবেকে প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়তে সোমবার পর্যন্ত সময় দিয়েছে তার দল। সময়সীমা পার হওয়ার পর তার বিরুদ্ধে সাংবিধানিক ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারিও দেয়া হয়েছে।

জানু-পিএফ পার্টির আইনি বিষয়ক সচিব প্যাট্রিক চিনামাসা বলেন, সোমবার বিকেলের মধ্যে, মুগাবেকে সরকার প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়াতে হবে। এটা না করলে জিম্বাবুয়ের সংবিধানের ৯৭ ধারা অনুযায়ী প্রেসিডেন্টের পদ থেকে তাকে অভিশংসনের প্রক্রিয়া শুরু করবেন জানু-পিএফের চিফ হুইফ।

এদিকে রাজনৈতিক চরম অস্থিরতার মধ্যে সেনাবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠক করেছেন মুগাবের সঙ্গে। রোববার বিকেলের ওই বৈঠকেও প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়তে রবার্ট মুগাবেকে চাপ দেয়া হয় বলে জানিয়েছে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম।

দুই সপ্তাহ আগে নানগাওয়াকে বরখাস্তের পর ১৫ নভেম্বর হারারের নিয়ন্ত্রণ নেয় সেনাবাহিনী গৃহবন্দি হন ৯৩ বছরের মুগাবে।