পদ্মা সেতু : দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনৈতিক করিডোর

0
21
মুম্বাইয়ে পরিত্যক্ত হাসপাতাল থেকে ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার

টাইমস সম্পাদকীয় : দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের সাথে রাজধানীর দূরত্ব জেলা-ভেদে ১৫০ কিলোমিটার কমিয়েছে পদ্মা সেতু। গত ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর ২৬ জুন থেকে যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দিলে এ ফলাফল পাওয়া যায়। এর আগে পাটুরিয়া ঘাট দিয়ে ফেরি চলাচলের মাধ্যমে যাতায়াত করলে যেখানে লাগতো আট থেকে ১০ ঘণ্টা। এখন তা সম্ভব হয়েছে মাত্র তিন চার ঘণ্টায়। দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে যাতায়াতের জন্যই শুধু পদ্মা সেতু নয়, এ সেতু অর্থনৈতিক উন্নয়নে করিডোর হয়ে উঠছে। সময় ও খরচ বাঁচাতে দক্ষিণ- পশ্চিমাঞ্চলে ছোট বড় শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে। ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে। সৃষ্টি হবে নতুন নতুন কর্মসংস্থান।
ইতিমধ্যে পদ্মা পারের বিভিন্ন জেলায় শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার জন্য দেশি বিনিয়োগকারীরা জমি কেনা শুরু করে দিয়েছেন। সামুদ্রিক ও স্থল বন্দরের ক্ষমতা বাড়াতে সরকার বিশেষ পরিকল্পনা নিয়েছে। ফলে বাড়বে আমদানি- রপ্তানি। স্থানীয় কৃষি পণ্য দ্রæততম সময়ে রাজধানীতে আনা সম্ভব হবে এবং কৃষক ন্যায্য মূল্য পাবে। শুধু তাই নয়, পদ্মা সেতুর কারণে -পর্যাটন শিল্পেরও বিকাশ ঘটবে। সাগর কন্যা কুয়াকাটা ও বিশ^ ঐতিহ্যের সুন্দর বন ভ্রমণে দেশি-বিদেশী পর্যটকরা সেখানে সমবেত হবেন। সেজন্য কুয়াকাটায় বেশ কয়েকটি পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়েছে।
যমুনা নদীর ওপর বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণের পর উত্তরাঞ্চলে শিল্পায়ন ও ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ঘটানোর জন্য কোনো পরিকল্পনা করা হয় নি। বিদ্যুৎ, গ্যাসের সংযোগের প্রতিও ছিল না কোনো নজরদারি। কিন্তু তারপরও উত্তরাঞ্চলে বেশ কিছু শিল্প উদ্যোগ দেখা গেছে। কৃষিপণ্যের ন্যায্য মূল্য কৃষকরা পেয়েছে। রাজশাহীর আম শুধু সারা দেশেই নয়, এখন আন্তর্জাতিক বাজারেও যাচ্ছে। কিন্তু পদ্মা সেতুকে কেন্দ্র করে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে অর্থনৈতিক কর্মকাÐের বিশেষ পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ফলে দেশের মানুষের জীবন যাত্রায় উন্নয়নের ছোঁয়া লাগবে। দেশে অর্থনীতিতে জিডিপি বাড়বে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী পদক্ষেপ পদ্মা সেতু। অনেক চড়াই উৎরাইয়ের পর আজ পদ্মা সেতু কার্যকর ভাবে জনজীবনে অবদান রাখছে। এখন বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের কাতারে রয়েছে। ২০৪১ সালের মধ্যে তা উন্নত দেশ হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রূপকল্প- ২০৪১ ঘোষণা করে তা বাস্তবায়ন করছেন। সারা বিশ^ আজ অবাক, নিজেদের টাকায় নিজেদের সেতু পদ¥া সেতু আজ বাস্তব। এজন্য আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের মর্যাদা বেড়েছে। বলা যায় আগামীতে বিশ^ দরবারে উন্নত দেশ হিসেব বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাড়াবে। আমরা সেদিনের প্রতিক্ষায় আছি।