নড়াইলে কালিয়া আজ ভূমিহীন মুক্ত ঘোষনা করা হবে

0
94

নড়াইল প্রতিনিধি:
নড়াইলের কালিয়া উপজেলাকে আজ ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা করা হবে। আজ ৮৫ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছেন আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বুধবার ভার্চুয়ালি আনুষ্ঠানিকভাবে এসব ঘর হস্তান্তর করবেন।
সোমবার বিকাল কালিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুনু সাহা এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসের হলরুমে অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিংয়ে আরও জানান, ৪র্থ পর্যায়ে এ ৮৫টি ঘরের নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এগুলোর মধ্যে কালিয়া উপজেলার পহরডাঙ্গা ইউনিয়নে বল্লাহাটি
ও চর-বল্লাহাটি খাস জমিতে ৩০ টি, জয়নগর ইউনিয়নে গাছবাড়িয়া গ্রামে ক্রয়কৃত জমিতে ১৭টি ও ঘড়িভাঙ্গা খাস জমিতে ১২ টি, কলাবাড়িয়া ইউনিয়নের লোহারগাতি গ্রামে ক্রয়কৃত জমিতে ২৬ টি, ঘর রয়েছে।
তিনি আরও জানান, কালিয়ায় আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় ১ম, ২য়, ৩য় পর্যায়ে ১ম ধাপে মোট ৫৩৮ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন দুস্থ পরিবারকে দ্বি কক্ষ বিশিষ্ট সেমি পাকা ঘর ও দুই শতক ভূমির দলিল দেয়া হয়। উপজেলায় তালিকাভুক্ত ক-শ্রেণীর ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের সংখ্যা ৬২৩টি। আশ্রায়ন-২ প্রকল্পে ক্রয়কৃত ৩ একর ৪৪ শতক জমিতে ৩৯২টি ও খাস ৯ একর ১৫ শতক জমিতে ২৩১টি ঘর সহ মোট ৬২৩টি ঘর রয়েছে। এ পর্যন্ত প্রথম পর্যায়ে ১৪০টি, দ্বিতীয় পর্যায়ে ১১০টি ও তৃতীয় পর্যায়ে ২৮৮টিসহ মোট পুনর্বাসিত হয়েছে ৫৩৮টি পরিবার। ৪র্থ পর্যায়ের ৮৫টি ঘর বৃহস্পতিবার আবেদনকারীদের মধ্যে হস্তান্তর করা হবে। আর এই গৃহ হস্তান্তর এর মধ্যে দিয়ে কালিয়া উপজেলাকে ‘ক’ শ্রেনীর ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষনা করা হবে।
মুজিববর্ষে “বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না” প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে গৃহহীন অসহায় পরিবারদের মাথাগোঁজার জন্য আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় এসব ঘর ও ভূমি দেয়া হচ্ছে। উপজেলা কর্মকর্তা রুনু সাহা আরো বলেন, বুধবার সকাল ৯ টায় প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালি আনুষ্ঠানিকভাবে সুবিধাভোগী পরিবারগুলোর মাঝে গৃহের চাবি ও ভূমির দলিল হস্তান্তর করবেন।
প্রেস ব্রিফিংয়ে এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কৃষ্ণ পদ ঘোষ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুনু সাহা, সহকারী কমিশনার (ভুমি) দিপন রায়, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আবুল কালাম মিয়াজী, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু রায়হান, মহিলা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা কেয়া দাস, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী খালিদ ওসমানী, পৌরসভার প্যানেল মেয়র আসলাম, সালামাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান মাহী,ও উপজেলা প্রশাসনের সকল দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারী,প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।