নেপালে নিহত আলিফের তৃতীয় নামাযে জানাযায় লাখো মানুষের অংশগ্রহণ

0
477

সাইমুম মোর্শেদ ও মারুফ হোসেন পান্না খুলনা থেকেঃ
গত ১২ মার্চ নেপালে বিমান বিধ্বস্তে নিহত রূপসা উপজেলার আইচগাতী গ্রামের আলিফুজ্জামান আলিফের তৃতীয় নামাযের জানাযা রুপসা উপজেলার বেলফুলিয়া ইসলামিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়।এর আগে প্রথম জানাযা নেপালে ও দ্বিতীয় নামাযের জানাযা ঢাকায় অনুষ্ঠিত হত। আজ ২৩ মার্চ শুক্রবার জুম্মাবাদ আলিফুজ্জামান আলিফের তৃতীয় নামাযের জানাযায় খুলনা জেলা সহ আশেপাশের সমস্ত জেলা উপজেলা থেকে লাখো অংশগ্রহণ করেন।এ সময় আলিফের বাবা মুক্তিযোদ্ধা মোল্লা আসাদুজ্জামান নিজ পুত্রের মরদেহ কে সামনে রেখে অশ্রুসিক্ত কন্ঠে বক্তব্য রাখেন, এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন আর রশীদ সহ খুলনার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ।

 

উল্লেখ্য, ১২ মার্চ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি বিমান কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিধ্বস্ত হয়। এ ঘটনায় ৪৯ আরোহীর মৃত্যু হয়, যাদের মধ্যে চার পাইলট-ক্রুসহ ২৬ জন বাংলাদেশি। তাদের মধ্যে ২৩ জনকে শনাক্ত করে ১৯ মার্চ দেশে নিয়ে আনা হয়।
আলিফের লাশ গতকাল ২২ মার্চ গভীর রাতে গ্রামের বাড়ীতে এসেছে। আজ ২৩ মার্চ জুম্মা বাদ বেলফুলিয়া ইসলামিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে তৃতীয় নামাযের জানাজা শেষে রাজাপুর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

 

জানা যায়,আলিফ রূপসার বেলফুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং খুলনার আহসান উল্লাহকলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় পাস করেন। এরপর ২০০৭ সালে তিনি কাজের সন্ধানে সৌদিতে যান। সেখান থেকে ২০১০ সালে ফিরে খুলনা সিটি কলেজে ভর্তি হয়ে ডিগ্রি পরীক্ষা দেন।

 

সর্বশেষ তিনি খুলনার বিএল কলেজ থেকে মাস্টার্স পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। এখনও কয়েকটি পরীক্ষা বাকি রয়েছে।এছাড়াও, খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রনেতা ও বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি ছিলেন তিনি। খুলনার বিএল কলেজ থেকে এবার মাস্টার্স পরীক্ষা দিয়েছেন তিনি। ৩ ভাইয়ের মধ্যে আলিফুজ্জামান ছিলেন মেঝ।