নির্বাচিত হলে নগরবাসীর সব ধরনের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করা হবে

0
406

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও ১৪ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, খুলনা সিটি কর্পোরেশন অনেক এলাকার মানুষ এখনো পরিপূর্ণ নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত। ওই সব এলাকার অধিবাসীরা সব ধরণের সেবা ঠিকমত পাচ্ছে না। এসব এলাকার মানুষের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করাই আমার লক্ষ্য।
তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। দরিদ্র মানুষের জীবনমান উন্নয়নে নতুন নতুন প্রকল্প হাতে নেওয়া হচ্ছে। এবারের সিটি নৌকা প্রতীক বিজয়ী হলে খুলনা সিটির দরিদ্র মানুষের জন্য সিডিসি’র পাশাপাশি নতুন প্রকল্প নেওয়া হবে। দরিদ্র বস্তিবাসীদের স্যানিটেশন ব্যবস্থা, ড্রেনেজ ব্যবস্থাসহ সব ধরনের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করা হবে।


আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী বলেন, আমরা কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। একটি দল নির্বাচন এলেই কথার ফুলঝুড়ি দিয়ে জনগণের সাথে প্রতারণা করে। তারা দীর্ঘদিন মেয়র পদে থেকেও খুলনার মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করেনি। তাদের সময়ে কেসিসিতে অস্থায়ী চাকরী পেতে হলেও ব্যাপক হারে দিতে হয়েছে ঘুষ। তিনি বলেন, ঘুষ, দুর্নীতিমুক্ত কেসিসি গড়া এবং সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জবাবদিহিতার আওতায় আনা আমরা লক্ষ্য। এজন্য তিনি ১৫ মে’র নির্বাচনে নৌকা প্রতীককে ভোট দিয়ে বিজয়ী করার জন্য নগরবাসীর প্রত আহ্বান জানান।


আজ শনিবার নগরীর ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে গণসংযোগকালে তিনি এসব কথা বলেন। সকাল ৮টায় তিনি নগরীর মতিয়াখালী ব্রীজ থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন। এরপর শিপইয়ার্ড, মতিয়াখালী মৌজা, মোল্লা বাড়ি, লবণচরা, জিন্নাহপাড়া, হঠাৎ বাজার, বান্ধা বাজার, বোখারী পাড়া, মোক্তার হোসেন রোড সংলগ্ন এলাকায় সাধারণ মানুষের সাথে সালাম ও কুশল বিনিময় করেন। এসময় এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে তিনি নির্মাণাধীন ইসলামপাড়া মেইন রোড রবিবারের মধ্যে চলাচলের উপযোগী করে দিতে ঠিকাদারকে নির্দেশ প্রদান করেন।


গণসংযোগকালে মেয়র প্রার্থীর সাথে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, জাসদ খুলনা মহানগর শাখার সভাপতি ও ১৪ দল নেতা রফিকুল হক খোকন, সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা জিয়াউল ইসলাম মন্টু, ৩১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ মোঃ ফারুক হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাহেবুর রহমান পিটু মোল্লা, সাবেক সভাপতি রফিকুল আলম, কাউন্সিলর প্রার্থী ও নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল, আওয়ামী লীগ নেতা হেমায়েত উদ্দিন, খান মোঃ কবির হোসেন, হিটু, জালাল আহমেদ, মোশারেফ হোসেন, আকরাম হোসেন, আজিজুল বারী বাহার, শেখ আরিদুল্লাহ, আঃ বারেক যুবলীগ নেতা আরিফ হোসেন, আসাদুজ্জামান শাহীন প্রমুখ।