নতুন বছরে পয়েন্ট হারালো ইউনাইটেড, টটেনহ্যাম, চেলসি

0
491

খুলনাটাইমস স্পোর্টস : মিকেল আর্তেতার অধীনে নতুন বছরে প্রথম জয় তুলে নিয়েছে আর্সেনাল। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ২-০ গোলে পরাজিত করে নতুন বসকে প্রথম জয় উপহার দিয়েছে গানার্সরা। এদিকে দিনের অপর ম্যাচগুলোতে পয়েন্ট হারিয়ে প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ চারের লড়াই থেকে ক্রমেই পিছিয়ে যাচ্ছে টটেনহ্যাম হটস্পার ও চেলসি। আর্তেতার অধীনে প্রথম দুই ম্যাচে আর্সেনাল মাত্র এক পয়েন্ট অর্জণ করেছিল। বিশেষ করে চেলসির বিপক্ষে গত সপ্তাহে ২-১ গোলের পরাজয়টা ছিল দারুন হতাশার। এগিয়ে থেকেও ব্লুজদের শেষ মুহূর্তের দুই গোলে আর্সেনালকে পরাজয়র বরণ করতে হয়েছিল। লন্ডন ডার্বির ঐ ম্যাচটিতে প্রায় পুরোটা সময় ভাল খেলেছে আর্সেনাল। এমিরেটস স্টেডিয়ামে কাল ইউনাইটেডের বিপক্ষে ম্যাচটিতে গানার্সরা ছিল আরো বেশী অপ্রতিরোধ্য। ম্যাচের ৮ মিনিটেই সিড কোলাসিনাচের ক্রসে আইভরি কোস্টের উইঙ্গার নিকোলাস পেপে খুব কাছে থেকে ইউনাইটেড গোলরক্ষক ডেভিড ডি গিয়াকে পরাস্ত করলে এগিয়ে যায় আর্সেনাল। গত ৯ ডিসেম্বর ওয়েস্ট হ্যামের বিপক্ষে লিগে সর্বশেষ জয় পেয়েছিল আর্সেনাল। ৪৩ মিনিটে আলেক্সান্দার লাকাজেত্তের ফ্লিক ডি গিয়া আটকে দিলেও সোকরাটিসের শট আর আটকাতে পারেননি। এই জয়ে আর্তেতার দল শীর্ষ চারের অবস্থান থেকে আর মাত্র ৯ পয়েন্ট দুরে থাকলো। সব ধরনের প্রতিযোগিতায় গত ১৬ ম্যাচে দ্বিতীয় জয় পেলেও সাবেক মিডফিল্ডার আর্তেতার অধীনে আর্সেনালের ভবিষ্যত নিয়ে অনেকেই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। ম্যাচ শেষে আর্তেতা বলেছেন, ‘এই অনুভূতি অসাধারণ। আমি দারুন খুশী ও খেলোয়াড়দের নিয়ে গর্বিত। দ্বিতীয়ার্ধে খেলোয়াড়রা কিছুটা পরিশ্রান্ত হয়ে পড়েছিল। কিন্তু তাদের প্রতিশ্রুতি ও ইচ্ছা ছিল প্রবল।’ চতুর্থ স্থানে চেলসির থেকে পাঁচ পয়েন্ট পিছিয়ে পঞ্চম স্থানেই থাকলো ইউনাইটেড। ইউনাইটেড ম্যানেজার ওলে গানার সুলশার বলেছেন, ‘আমরা প্রথম পাঁচ থেকে ছয় মিনিট ম্যাচে নিজেদেরে ধরে রাখলেও তা কাজে লাগাতে পারিনি। এরপর থেকেই তারা শেষ পর্যন্ত আধিপত্য দেখিয়েছে। প্রথমার্ধে আমরা অতিরিক্ত ধীর গতিতে খেলেছি। হতে পারে খেলোয়াড়রা কিছুটা পরিশ্রান্ত হয়ে পড়েছে।’ টানা চতুর্থবারের মত চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার যোগ্যতা অর্জনের পথে চেলসি ভালভাবেই লিগ টেবিলের চতুর্থ স্থানটি ধরে রেখেছে। কিন্তু ব্রাইটনের বিপক্ষে শেষ মুহূর্তের গোলে কাল জয় পাওয়া হয়নি ফ্রাংক লাম্পার্ডের শিষ্যদের। ১০ মিনিটে সিজার আজপিলিকুয়েটার গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ব্লুজরা। কিন্তু ৮৪ মিনিটে ইরানিয়ান বদলী খেলোয়াড় আলিরেজা জাহানবকশের দুর্দান্ত ওভারহেড কিকে ১৪তম স্থানে থাকা ব্রাইটন এক পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছাড়ে। ল্যাম্পার্ড বলেন, ‘ম্যাচটি অন্য একটি কারনে হতাশার ছিল। আমরা কোনভাবেই পুরো ম্যাচে আগ্রাসী হতে পারিনি। ম্যাচের শুরুতে গোল ও পজিশন পেলেও তা ধরে রাখতে পারিনি।’ চেলসি ও ইউনাইটেডের এই পয়েন্ট হারানোর সুযোগে হোসে মরিনহোর টটেনহ্যামের সামনে সুযোগ এসেছিল শীর্ষ চারে উঠার জন্য এই দুই দলের ওপর চাপ সৃষ্টি করার। কিন্তু সাউদাম্পটনের কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হয়ে আরো নীচে নেমে গেছে স্পার্সরা। তার উপর দলের ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেনের হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি নতুন করে দু:শ্চিন্তায় ফেলেছে মরিনহোকে। সেন্ট ম্যারিস স্টেডিয়ামে ম্যাচের ১৭ মিনিটে ড্যানি ইনগেসের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল স্বাগতিক সাউদাম্পটন। ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের ফ্রি-কিক গোলে পরিণত করার সময় কেন ইনজুরিতে পড়ে মাঠের বাইরে চলে যাবার পর অফ-সাইডের কারনে গোলটি বাতিল হয়ে যায়। সাউদাম্পটন বেঞ্চে গিয়ে আইন ভঙ্গের কারনে মরিনহোকে হলুদ কার্ড দেখানো হলে আরো হতাশ হয়ে পড়েন স্পার্স কোচ। ঘটনাটি স্বীকার করে মরিনহো বলেছেন, এই কার্ডটা আমার প্রাপ্য ছিল। আমি সেখানে বাজে শব্দ ব্যবহার করেছি। দিনের অপর ম্যাচগুলোতে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিস্টার ৩-০ গোলে নিউক্যাসেলকে উড়িয়ে দিয়েছে। ইতিহাদ স্টেডিয়ামে গাব্রিয়েল জেসুসের দ্বিতীয়ার্ধের দুই গোলে এভারটনকে ২-১ গোলে পরাজিত করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। কার্লো আনচেলত্তির অধীনে এটাই এভারটনের প্রথম পরাজয়।