ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে বউ-শাশুড়িকে হত্যা

0
347

খুলনা টাইমস্: ১৭ মে, বৃহস্পতিবার দুপুরে হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শম্পা জাহানের আদালতে অভিযুক্ত জাকারিয়া আহমেদ শুভ ও তালেব হোসেন এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেন। হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে বউ-শাশুড়িকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযুক্ত দুই ব্যক্তি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে বউ-শাশুড়িকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযুক্ত দুই ব্যক্তি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে।

জাকারিয়া আহমেদ শুভ উপজেলার ভুবিরবাগ গ্রামের হাফিজুর রহমানের পুত্র। তালেব হোসেন একই উপজেলার আমতৈল গ্রামের আমির হোসেনের পুত্র।
আদালতের বরাত দিয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নবীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক পার্থ রঞ্জন চক্রবর্তী জানান, উপজেলার সাদুল্লাহপুর গ্রামের লন্ডন প্রবাসী আখলাছ মিয়ার বসতঘর ও তার পরিবারের লোকজনের দেখাশোনা করতেন তালেব হোসেন নামে এক ব্যক্তি। দীর্ঘদিন দেখাশোনা করত বলে আখলাছের স্ত্রী রুমি বেগমকে (২২) তালেব প্রায়ই কু-প্রস্তাব দিতেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বেশ কয়েকবার ঝগড়ার ঘটনাও ঘটে।
তালেব ছাড়াও অভিযুক্ত জাকারিয়া আহমেদ শুভও রুমিকে প্রায়ই বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতেন। একপর্যায়ে তালেব ও শুভ দুজন একত্র হয়ে রুমিকে ধর্ষণের পরিকল্পনা করেন। একপর্যায়ে ১৩ মে রাত সাড়ে ১১টার দিকে তারা আখলাছ মিয়ার ঘরে ঢুকে রুমিকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় আখলাছ মিয়ার মা মালা বেগম বিষয়টি আঁচ করতে পেরে রুমির দিকে এগিয়ে গেলে তারা তার ওপর চড়াও হয়ে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত ও কুপিয়ে হত্যা করেন। পরে তারা ধর্ষণ করতে না পেরে রুমিকেও হত্যা করেন।