দেবহাটায় ১৩ বছরের শিশু কন্যাকে দোকানে নিয়ে ধর্ষনের অভিযোগ

0
783

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটায় ১৩ বছরের শিশু কন্যাকে মধ্যরাতে নিজের মুদী দোকানে নিয়ে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার হাদিপুর জগন্নাথপুর বটতলা এলাকায়। জানাযায়, উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের ছোরালী গাজীর পুত্র জাহাঙ্গীরের ১৩ বছর বয়সী কন্যাকে শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে একই গ্রামের শওকাত গাজীর পুত্র শাহিন গাজী (৩২) নিয়ে আসে জগন্নাথপুর সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল ইসলামের বাড়ির মোড় সংলগ্ন প্রধান সড়কের পশ্চিম পার্শ্বে তার মুদি দোকানে। সেখানে কন্যা শিশুটিকে ফুসলিয়ে প্রায় ১ঘন্টা আটকে রেখে ধর্ষন করে। কন্যার বাবা ইটভাটা শ্রমিক জাহাঙ্গীর সারাদিনের ক্লান্তি শেষে সন্ধায় ঘুমিয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে কন্যাকে ঘরে না পেয়ে খুঁজতে খুঁজতে বাইরে যায়। এক পর্যায়ে ঐ দোকানের পাশে পৌছালে তার সন্দেহ হয়। সেসময় কন্যার পিতা শাহিনকে দোকান খুলতে বললে শাহিন তাকে গলা ধাক্কা দিয়ে বাহিরে বের করে দেয়। তখন কন্যার পিতার আরো সন্দেহ বেড়ে যায়। ততক্ষনে কন্যাকে সেখান থেকে গোপনে বাইরে বাহির করে দেয় লম্পট শাহিন। কন্যার পিতা শিশু কন্যাকে অনেক খোঁজা খুজির একপর্যায়ে পর দিন সাতক্ষীরায় তার দাদির বাড়িতে খুঁজে পায়। পরে শিশুর কাছে উক্ত ঘটনার বিষয়ে জানতে পেরে রবিবার শিশু কন্যার পিতা বাদি হয়ে দেবহাটা থানায় একটি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে। কন্যার পিতা জাহাঙ্গীর গাজী উক্ত ঘটনায় জড়িত লম্পট শাহিন গাজী শাস্তির দাবি জানিয়ে বলেন, শাহিনের কারনে এলাকার মেয়েরে নিরাপাদে থাকতে পারে না। আমাকে বিষয়টি মিমাংসার জন্য প্রস্তাব দিলেও আমি শাহিনের উপযুক্ত শাস্তির জন্য মামলা দায়ের করবো। সে ভবিষ্যতে আমার মেয়ের মত আর কাউকে যেন ক্ষতি করতে না পারে। উল্লেখ, শাহিন গাজীর বিরুদ্ধে এলাকায় আছে নানা অভিযোগ। এলাকা সূত্রে জানা যায়, শাহিন বিভিন্ন সময় এলাকার নারীদের উত্যক্ত করতে তাদের বাড়িতে ইট-পাটকেল ছুড়ে ভয় ভীতি প্রদর্শন করে। তাছাড়া শাহিনের কারণে একই গ্রামের আরাফাত গাজীর স্ত্রী স্বামীর ঘর ছেড়েছেন এমন অভিযোগ উঠেছে এলাকায়। এব্যাপারে অভিযুক্ত শাহিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার বিষয়ে অস্বীকার করেন। এবিষয়ে দেবহাটা থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই নয়ন চৌধুরী জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। মামলা দায়েরের প্রস্তুুতি চলছে।