দেবহাটায় সংখ্যালঘু পরিবারকে দেশ ছাড়ার হুমকিতে সংবাদ সম্মেলন

0
294

দেবহাটা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি:
দেবহাটার নাংলায় সংখ্যালঘু পরিবারকে দেশ ছাড়ার হুমকির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সংখ্যালঘু এক সদস্য। বৃহস্পতিবার বিকালে দেবহাটা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে দক্ষিণ নাংলা গ্রামের মৃত দেবন্দ্র দাসের পুত্র হরিপদ ফকির দাস বলেন, দেবহাটার নাংলায় চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী সিদ্দিক গাজী বিরুদ্ধে এলাকাবাসী গনস্বাক্ষরের ভিত্তিতে থানায় লিখিত অভিযোগে স্বাক্ষর দেওয়ার অপরাধ সংখ্যালঘুদের বাড়ি গভির রাতে যেয়ে দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে সংখ্যালঘুরা পরিবারর সদস্যরা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। লিখিত অভিযোগ তিনি আরও বলেন, নাংলা গ্রামের আবদার গাজী পুত্র সিদ্দিক গাজী ও একই গ্রামের মৃত হায়দার গাজীর পুত্র সাইফুল ইসলাম দীর্ঘদিন যাবত মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিল ও এলাকায় নানা অপকর্মের সাথে লিপ্ত আছে। এছাড়া সিদ্দিক ও তার দলবল কিছুদিন আগে গভীর রাতে আমার বাড়িতে যেয়ে মাথায় পিস্তল ঠেকিয় ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে আমাকে মারপিট করে এবং দুই হাজার টাকা ও একটি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। ঘর থেকে বাহির হওয়ার সময় সিদ্দিকের মুখের বাধনটি খুলে গেলে আমার স্ত্রী রিতা দাস সিদ্দিককে চিনতে পারে। পরদিন সকালে স্থানীশ গন্যমান্য ব্যক্তিদের বিষয়টি জানাই। কিন্তু সিদ্দিক সেটি অস্বীকার করে বলে আমি এমন কিছু করি নাই। এছাড়া সাম্প্রতিক পুলিশ মাদকসহ আটক করলে সিদ্দিক ও তার স্ত্রী পুলিশর উপর হামলা চালায়। তার এই অপকর্ম থেকে রেহায় পেতে স্ত্রীকে দিয়ে বিভিন্ন সময় মামলা ও সংবাদ সম্মেলন করে থাকে। গত ১৬ নভেম্বর এলাকার শত শত সাধারণ মানুষ মাদক ব্যবসায়ী সিদ্দিকের বিরুদ্ধে গন স্বাক্ষরের ভিত্তিতে দেবহাটা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগে স্বাক্ষর থাকায় রাতে আমার বাড়িতে সিদ্দিক ও সাইফুল এসে পরিবার নিয়ে দেশ ছেড়ে চলে যেতে বলে,  না হলে আর বাঁচবিনা বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়। তাছাড়া সিদ্দিক বিভিন্ন থানায় একাধীক মাদক, ডাকাতি মামলার আসামী। তার কাছে অবৈধ্ অস্ত্র থাকায় যেকান অপরাধ করতে দ্বিধা করে না। আমি অসহায় হওয়ায় বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় জীবন যাপন করছি। তাই পুলিশ সুপারসহ উদ্ধতন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।