দেবহাটায় ট্রান্সফরমারের মালামাল চুরির সময় টহল পুলিশের হাতে ২ চোর আটক

0
58

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটার সখিপুর থেকে ট্রান্সফরমারের মালামাল চুরি করে পালানোর সময় টহল পুলিশের হাতে ২ চোর আটক হয়েছে। রবিবার মধ্যরাতে থানা নিয়মিত টহলের সময় সন্ধেহজনক ২ ব্যক্তির ব্যাগ তল্লাশি করে পুলিশ। । এসময় ঐ দুই চোরের ব্যাগে ট্রান্সফরমারের মালামাল পেলে তাদেরকে গ্রেফতার করে থানার টহলরত পুলিশ সদস্যরা। আটককৃতরা দুই চোর কালিগঞ্জ উপজেলার ব্রজপাটুলিয়া গ্রামের নওশাদ আলীর ছেলে নুরুজ্জামান মিস্ত্রি (৩৬) এবং নলতার সেহারা গ্রামের শোকর আলী গাজীর ছেলে রুস্তম আলী গাজী (২৫)।
এঘটনায় দেবহাটা উপজেলা সাব-জোনালের এজিএম জহুরুল ইসলাম বাদি হয়ে দেবহাটা থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন। এজিএম জানান, সখিপুরের কামটা এলাকার ইট ভাটা দক্ষিণ পাশে জনৈক মোহাম্মদ আলীর ধান ক্ষেতের মাঝে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে দুটি ৫ কেভিএ ট্রান্সফরমার রয়েছে। রবিবার রাতের আধারে চোররা ট্রান্সফরমার ভিতরে থাকা কয়েল সহ মূল্যবান মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। পরের দিন সকালে কৃষক মোহাম্মদ আলী ও শহিদুল ইসলাম ধান ক্ষেতে সেচ দিতে গিয়ে দেখেন আসে পাশের খুঁটিতে বিদ্যুৎ থাকলেও তাদের মিটারে সংযোগ বন্ধ। পরে তারা দেখতে পায় ট্রান্সফরমার খোলা। তখন ওই দুই কৃষক অফিসে জানালে আমি তৎক্ষনিক ঘটনাসস্থল পরিদর্শন করি। সেখানে গিয়ে জানতে পারি কামটা টু গাজীরহাটগামী রাস্তার পাশ থেকে আরো একটি ট্রান্সফরমারের কয়েল চুরি হয়ে গেছে। পরে বিষয়টি নিয়ে দেবহাটা থানায় এজাহার দায়ের করতে গেলে জানতে পারি ওই রাতে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চুরি হয়ে যাওয়া ট্রান্সফরমার দুটির মূল্য অনুমানিক ৮৫ হাজার ৪০২ টাকা। থানায় উদ্ধার হওয়া মালামাল চুরি হওয়া ট্রান্সফরমারের সানাক্ত হয়।
দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেখ মাহমুদ হোসেন জানান, ট্রান্সফরমারের চুরি করে পালানোর সময় পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করেছে। আসামীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চুরি সংক্রান্ত বিষয়ে তাদের নিয়ে অভিযান চলছে। তিনি আরো জানান, কিছুদিন পূর্বে এলাকায় বেশ কিছু চুরির ঘটনা ঘটে। পুলিশের অভিযানে একের পর এক চোর আটক হচ্ছে। পর্যক্রমে সে সব ঘটনার রহস্য উন্মোচন ও চুরিকৃত মালামাল উদ্ধারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।