দুই যুদ্ধ জাহাজ তৈরি করল খুলনা শিপইয়ার্ড

0
1080

খুলনা টাইমস ডেস্ক :

এই প্রথম নিশান ও দুর্গম নামে দুটি অত্যাধুনিক যুদ্ধ জাহাজ তৈরি করেছে খুলনা শিপইয়ার্ড। চীনের কারিগরি সহায়তায় মাত্র দু’বছরে এ দুই পেট্রোল ক্রাফট নির্মাণ করা হল। যুদ্ধ জাহাজ দুটি যুক্ত হলে সমুদ্র সীমা নিরাপত্তা, সম্পদ আহরণ ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সক্ষমতা আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা হচ্ছে। ৮ নভেম্বর রাষ্ট্রপতি মো.আব্দুল হামিদ নবনির্মিত ওই যুদ্ধ জাহাজ নৌবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

২০১৪ সালের ৩০ জুন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জন্য দুটি লার্জ পেট্রোল ক্রাফট বা বড় যুদ্ধ জাহাজ নির্মাণে চুক্তিবদ্ধ হয় খুলনা শিপইয়ার্ড। ২০১৫ সালের ৬ সেপ্টেম্বর জাহাজ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর চীনের যুদ্ধজাহাজ বিশেষজ্ঞদের কারিগরি সহায়তায় মাত্র দুই বছরের প্রচেষ্টায় জাহাজ দু’টির নির্মাণ কাজ শেষ হয়।

নবনির্মিত বিএন নিশান ও দুর্গম নামের যুদ্ধ জাহাজের প্রতিটি’র দৈর্ঘ্য ৬৪ দশমিক ২মিটার ও প্রস্থ ৯মিটার এবং গভীরতা ৪ মিটার। সমুদ্র পথে ঘণ্টায় ২৫’নটিক্যাল মাইল চলাচলে ক্ষমতা সম্পন্ন এ জাহাজে স্বয়ংক্রিয় মিসাইল ও অত্যাধুনিক যুদ্ধাস্ত্রসহ একসাথে ৭০’জন নাবিক থাকতে পারবেন।
দেশের জন্য গৌরবময় এ কাজের সাথে সম্পৃক্ত থাকতে পেরে গর্বিত শ্রমিক-কর্মচারীরা
এরইমধ্যে নিশান ও দূর্গম নামের জাহাজ দুটি নদী ও সমুদ্রে পরীক্ষামূলক চালানো হয়েছে। ঘণ্টায় ২৫ নটিক্যাল মাইল গতিতে চলতে সক্ষম এ দুই যুদ্ধ জাহাজে অত্যাধুনিক অস্ত্রসহ ৭০ নাবিক থাকতে পারবেন।

জাহাজ দুটি সংযুক্ত হলে সমুদ্র সীমা নিরাপত্তা, সম্পদ আহরণ ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় নৌবাহিনীর সক্ষমতা আরও বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে।

যুদ্ধ জাহাজ দুটি নির্মাণে খরচ হয়েছে ৮শ’ কোটি টাকা।