দাকোপে স্কুলছাত্রী বন্যার আত্মহত্যায় প্ররোচনকারী অভিজিৎ গ্রেফতার

0
278

খুলনা টাইমস প্রতিবেদক:
প্রেমিকার সাথে প্রতারণা করে তাকে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে বাধ্য করার অভিযোগে প্রেমিক অভিজিৎ মন্ডলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
জানা গেছে, উপজেলা বাজুয়া গ্রামের রবীন্দ্রনাথ মন্ডল ওরফে রবির বাড়িতে ভাড়া থাকতেন বাজুয়া এসএন ডিগ্রী কলেজের মানবিক শাখার দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী বন্যা রায়। বন্যার পিতা মাতা কাছে না থাকায় অভিজিৎ তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। এতে বন্যা ক্ষিপ্ত হলে অভিজিৎ তাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। একপর্যায়ে বন্যা অভিজিতের প্রেমে সাড়া দেয়। তাদের মধ্যে গভীর সম্পর্ক গড়ে ওঠে। শেষ পর্যন্ত অভিজিৎ বন্যার সাথে প্রতারনা করায় মৃত্যুর পথ বেচে নেয় বন্যা। গত ২৭ অক্টোবর বন্যার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হসপাতালে প্রেরণ করা হয়। প্রাথমিক অবস্থায় দাকোপ থানায় গত শুক্রবার একটি অপমৃত্যু দায়ের করা হয়। মামলা নং-২১।
বন্যা রায়ের পিতা অনিমেশ রায় বলেন, আমার মেয়ে বন্যার মৃতদেহের পাশে তার মুঠোফোন রাখা ছিল। তার পাশে ফোনের পাসওয়ার্ড লেখা একটি ডায়েরিসহ একাধিক প্রেম পত্র রাখা ছিল। আমরা তার মুঠোফনের মাধ্যমে জানতে পারলাম অভিজিতের প্রেমের কারণে বন্যা আত্মহত্যা করেছে। এ বিষয়ে পুলিশকে অবহিত করা হলে থানা পুলিশ মুঠোফোনসহ প্রেমপ্রত্র পুলিশ হেফাজাতে নেয়। গত ৯ নভেম্বরে থানায় বন্যা রায়ের পিতা অনিমেশ রায় বাদি হয়ে প্ররোচনা মামলা দায়ের করে। মামলা নং-০৫।
থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাহাবুদ্দিন চৌধুরী বলেন, বন্যার মৃতদেহের পাশ থেকে পাওয়া ডায়েরী ও অন্যান্য আলমতে প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয় যে বন্যার মৃত্যুর জন্য অভিজিৎ দায়ী। তাকে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।