দাকোপে শত্রুতামূলকভাবে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখম, গ্রেফতার-১

0
423

প্রতিনিধি,দাকোপ :
খুলনার দাকোপ উপজেলার রামনগরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ। গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে এজাহার নামিয় এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে।

 

সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী বনজ সম্পদ পাচারকারী ওই গ্রুপের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী।

ভুক্তভোগী পরিবার ও থানা পুলিশ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার কৈলাশগঞ্জ ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের রাজ্জাক সরদার ও আব্দুল গাজীর নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী চোরাকারবারী গ্রুপ দীর্ঘদিন যাবৎ সুন্দরবনের সম্পদ পাচারের সাথে জড়িত। বিভিন্ন সময় তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের অভিযান পরিচালনাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী মৃত্যু শওকত শেখের পুত্র আ. রহমান শেখের সাথে তাদের বিরোধ চলে আসছে। তাদের সন্দেহ রহমান প্রশাসনকে সকল অপকর্মের তথ্য দেয়। দীর্ঘদিনের এমন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ১ লা অক্টোবর সোমবার সকালে বাড়ীর সামনে রাস্তায় গতিরোধ করে তারা রহমান শেখের উপর হামলা করে। রাজ্জাক সরদার এবং তার ২ পুত্র আলামিন, মান্নান এবং আব্দুল গাজীসহ আরো কয়েকজন মিলে তার মাথায় চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে রক্তাত্ত জখমসহ বেধড়ক মারপিট করে।

রহমানের ডাকচিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসী গ্রুপ এরপর বাড়াবাড়ী করলে জীবন নাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। এ সময় তারা রহমানের কাছে থাকা নগত ২৩ হাজার টাকা এবং আনুমানিক ৩৭ হাজার টাকা মুল্যের একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়। ঘটনার পর স্বজনরা মারাত্মক আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে কর্তব্যরত ডাক্তার জানায় তার মাথায় গভীর ক্ষতচিহ্নসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতে গুরুত্বর আহত হয়েছে। পরবর্তীতে রহমান শেখের পুত্র মিজানুর রহমান শেখ বাদী হয়ে ৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৩ থেকে ৪ জনের নামে দাকোপ থানায় এজাহার দাখিল করে। মামলা নং ০১ তাং ০১/১০/১৮। মামলা দায়েরের পর পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে ৪ নং আসামী আব্দুল গাজীকে গ্রেফতার করেছে। ভুক্তভোগী পরিবার জানায় ভয়ংকর সন্ত্রাসী আসামীরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি ধামকিসহ আমাদের স্বাক্ষীসহ সকলকে মিথ্যা মামলায় জড়ানোর হুমকি দিচ্ছে।