দাকোপে জেলেকে কুপিয়ে হত্যা

0
376

আজিজুর রহমান :
খুলনার দাকোপ উপজেলায় নাসির সানা(৩৮) নামে এক জেলেকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার (১০ জুলাই) দিবাগত মধ্যরাতে এ ঘটনাটি ঘটে। সে উপজেলার কামারখোলা ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামের রাজ্জাক সানার ছেলে।
জানা যায়, প্রতিদিনের মত নাসির সন্ধ্যায় গ্রামের বিলে মাছ ধরতে যায়। সেখানে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্রদ্বারা তাঁকে কুপিয়ে হত্যা করে। আগের শত্রুতার জের ধরে এ হত্যার শিকার হয়েছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করেন।
স্ত্রী সখিনা বেগম জানায়, পাঁচ সদস্যের পরিবার পরিজনের জীবিকা নির্বাহের জন্য সে গ্রামের মধ্যবিলের কয়েকটি খালে ও স্থানীয় নদীতে জাল ও পাটা পেতে মাছ শিকার করত। ঘটনার দিন মাছ শিকারে গেলে রাত গভীর হলেও বাড়ি ফিরেনি স্বামী নাসির।
কামারখোলা ইউপি চেয়ারম্যান পঞ্চানন মন্ডল মুঠোফোনে বলেন, সারারাত নাসির বাড়িতে না আসায়, তার স্ত্রী ও কন্যা অনেক খোজাখুজি করে না পেয়ে বিলের মধ্যে যায়। সেখানে গিয়ে নাসিরের গলাকাটা মৃতদহ দেখতে পেয়ে ডাক চিৎকার করতে থাকে। এ সময় স্থানীয়রা সেখানে গিয়ে নাসিরের জবাইকৃত লাশ দেখতে পাই এবং ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে স্থানীয় ঈদগাহ ময়দানে রাখেন। পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ সেখানে আসে।
থানা পুলিশের উপপরিদর্শক মাসুদ আর রহমান বলেন, কামারখোলার ঠাকুরবাড়ির খাল থেকে লাশটি গ্রামবাসি উদ্ধার করে ঈদগাহ ময়দানে রাখেন। ময়না তদন্তের জন্য লাশটি সেখান থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। এ ঘটনায় নাসিরের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি হত্যা মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।
নাসিরের পিতা মো. রাজ্জাক সানা ছেলের হত্যার আসামী একই গ্রামের বাসিন্দা লতিফ সানাকে সন্দেহ করে বলেন, স্থানীয় ঠাকুরবাড়ি খাল ও কামারগোদা নদীতে মৎস্য শিকার সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে নাসিরের সাথে লতিফের ঝগড়া ছিল।
থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহাবুদ্দিন চৌধুরী খুলনা টাইমসকে বলেন, পুলিশ খবর পেয়ে নাসিরের জবাইকৃত লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। ময়না তদন্তের জন্য খুলনা মেডিক্যাল হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে। এ ব্যাপারে এখনো কাওকে আটক করা হয়নি।