দাকোপে আ’লীগ নেতার রোপা ধান নষ্ট করল দুর্বৃত্তরা

0
580

প্রতিনিধি,দাকোপ :
খুলনার দাকোপ উপজেলার কৈলাশগঞ্জ ইউনিয়নের ০২ নম্বর ওয়ার্ড আ’লীগের সহসভাপতি গনেশ মৃধার রোপোনকৃত আমন ধান নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা।

ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার সুত্রে জানা যায়, ইউনিয়নের ধোপাদি গ্রামের গনেশ মৃধা দিং যথাক্রমে ৪৮৫, ৪৮৭, ৪৯০ দাগের দুই একর ৯৭ শতক জমির মধ্যে এক একর ৯০ শতক জমি ওয়ারেশ সুত্রে ভোগদখল করে আসছে। একই এলাকার মৃত তারাপদ পালের পুত্র সমীর পাল(৫০) উক্ত সম্পত্তি নিজের দাবি করে বেশ কয়েক বছর পূর্বে কোর্টে একাধিক মামলা দায়ের করে। এ পর্যন্ত চারটি মামলার রায় বিবাদী গনেশ মৃধা দিংদের পক্ষে আসে। এরপর বাদী সমীর পাল বসে না থেকে জমিটি দখলে আনার প্রয়াসে দাকোপ থানায় একটি আবেদন করলে থানায় শালিসীর দিন ধার্য্য হয় তখন বিবাদী গনেশ মৃধা উচ্চ আদালতে মামলাটির শোনানি হচ্ছে বিধায় থানায় এবিষয়ে শালিসী নিস্প্রয়োজন মর্মে গত ২৪ আগষ্ট দাকোপ থানায় লিখিত আবেদন জানায়। তারপর মঙ্গলবার (২৮ আগষ্ট) সকাল ১১টার দিকে সমীর পাল খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত আরিফ চৌধুরির ছেলে বিএনপি নেতা মনিরুল ইসলাম চৌধুরির (মনা) সহায়তায় থানা পুলিশের উপস্থিতে তার দলীয় মাস্তান বাহিনী নিয়ে গনেশ মৃধার রোপা ধান উপড়ে ফেলে এবং ধান ক্ষেত পাওয়ার ট্রিলার দিয়ে চাষ করে দেয়। তখন এদৃশ্য এলাকাবাসি নিরবে দাঁড়িয়ে দেখে।

প্রত্যক্ষদর্শী পারুল মন্ডল, রশিদ গাজী, অজিৎ রায়, স্বপন গাইন, সুভাষ সরদারসহ আরও অনেকে জানান, সমীর পাল ও মনা সাহেব বহিরাগত একদল সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে গনেশ মৃধার জমির রোপা ধান উপড়ে ফেলে ও ধানের উপর দিয়ে টিলার চালিয়ে দিয়ে ধান নষ্ট করে দেয়। তখন দাকোপ থানা পুলিশের পাঁচ জন সদস্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
এ বিষয়ে দাকোপ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সাহাবুদ্দিন চৌধুরি মুঠোফোনে খুলনাটাইমসকে  বলেন, ঘটনার দিন উভয় পক্ষের মধ্যে বড় ধরণের কোনো সংঘর্ষ যাতে না হয় সে জন্য থানা পুলিশ সেখানে যায় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।