তালায় বসত-বাড়িতে হামলা চালিয়ে মা-ছেলেকে পিটিয়ে আহত॥থানায় অভিযোগ

0
521

সাতক্ষীরা (তালা) প্রতিনিধি:
সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় পারিবারিক শত্রুতার জের হিসেবে প্রতিপক্ষরা বসত বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর, লুটপাট ও মা-ছেলেকে মারপিট ও শ্লীলতাহানি ঘটিয়েছে। ঘটানাটি ঘটেছে (১০ মে) গত শুক্রবার সকালে তালা উপজেলার খেশরা ইউনিয়নের বালিয়া গ্রামে। ঘটনায় তালা থানায় একটি অভিযোগ হয়েছে।
থানার অভিযোগ ও পারিবারিক সূত্র জানায়,তালা উপজেলার বালিয়া এলাকার শাহবুদ্দীন মোড়লের স্ত্রী নাছিমা বেগম ও তার ছেলে ফারুখ হেসেনের সাথে একই এলাকার মৃত ছাত্তার মোড়লের ছেলে হাফিজ মোড়ল,তার মা নাচু বেগম (৫০), ইয়াসিন মোড়লের স্ত্রী মনি বেগম(৩৫) এর সাথে পারিবারিক গোলযোগ চলে আসছিল।
এর সূত্র ধরে গত ১০ মে সকাল ১০ টার দিকে লাঠি-সোটা,লোহার রড,হাতুড়িসহ দেশীয় অস্ত্রসহ তারা নাছিমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। এক পর্যায়ে তারা নাছিমা ও তার ছেলে বাড়ির উঠানে চারদিক থেকে ঘিরে ধরে নানা হুমকি-ধামকি ও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে। প্রতিবাদ করায় তারা মা-ছেলেকে পিটিয়ে মারাতœকভাবে আহত করে। এসময় তারা ফারুখের পকেট থেকে নোকিয়া ফোন তুলে নেয়। নাছিমার পরণের শাড়ী খুলে নিয়ে ছিড়ে ফেলে।
এসময় মাটির ঘরের দেওয়াল ও টালি ভাংচুর করে ক্ষতিসাধন করে। সামগ্রিক ঘটনায় প্রতিবাদ করায় তারা তাদের এলাপাথাড়ি মারপিট,লাথি-গুতা ও হত্যার উদ্দেশে গলা চেপে ধরে। এসময় ফারুখের আতœচিৎকারে প্রতিবেশী জাহাঙ্গীর মোড়লের স্ত্রী সুন্দরী বেগম(৪০),আনার মোড়লের স্ত্রী নারগিছ বেগম(৫০) এগিয়ে আসলে তারা হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে ফারুখের অবস্থার অবনতি হলে ভ্যানযোগে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে ফারুক তালা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।
তালা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)মেহেদী রাসেল এজাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।