তালায় জনবসতি এলাকায় দু’টি বানিজ্যিক ইট পাজা স্থাপন

0
663

তালা প্রতিবেদক :
সাতক্ষীরায় তালায় সরকারি নীতিমালা উপেক্ষা করে বিনা অনুমতিতে জনবসতি এলাকায় বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ইটের পাজা স্থাপনের অভিযোগে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী। এতে ফসলি জমির মাটি কেটে ইট প্রস্তুত ও তা পুড়াতে ব্যাপকহারে কাঠ পুড়ানো হচ্ছে। অথচ স্থানীয় প্রশাসন এক অজ্ঞাত কারণে কোন প্রকার পদক্ষেপ নিচ্ছেননা।
অভিযোগে জানাগেছে,তালা উপজেলার জেঠুয়া গ্রামের মৃত নেহাল উদ্দীন শেখ’র ছেলে ইউপি সদস্য আঃ রশিদ শেখ স্থানীয় জনবসতি এলাকায় পাশাপাশি আমিন ব্রিক্সের নামে দু’টি ইটের পাজা স্থাপন করে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ইট প্রস্তুত করে তা কাঠ দিয়ে পুড়াচ্ছে। সূত্র জানায়, ইট প্রস্তুত করতে প্রধান উপাদান মাটির যোগান মেটাতে তারা স্থানীয় ফসলি জমির মাটি কেটে পুকুর তৈরী করেছে।
এলাকাবাসী জানায়,জনবসতি এলাকায় ইট পাজা (ভাটা) স্থাপন করায় ঐ এলাকা স্বাভাবিক জীবন যাপনে বিরুপ প্রভাব পড়েছে। সারাক্ষণ ভাটার উটকো ধোঁয়ায় দম বন্ধ হওয়ার উপক্রম। ফসল ও বৃক্ষরাজিতেও প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। বিষাক্ত ধোঁয়ার পাশাপাশি ভাটার অবিরাম নির্গত কালো কালিতে জমির ফসল ও গাছ-গাছালির পাতা-পল্লবে প্রলেপ জমতে শুরু করেছে। বিশেষজ্ঞদের ধরণা,দীর্ঘ দিন যাবৎ এভাবে ইটের পাজা চলতে থাকলে এলাকার সামগ্রিক পরিবেশ মারাতœকভাবে বিপর্যস্ত হবে। মানুষের শ্বাস কষ্টসহ বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত হওয়ারও আশংকা রয়েছে। এব্যাপারে অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল সরেজমিনে গেলে দেখা যায়,পাজার অবিরাম নির্গত বিষাক্ত ধোঁয়ায় এলাকায় থাকা তো দূরের কথা ঢোকাও দুষ্কর হয়ে পড়েছে। এব্যাপারে ভাটার মালিক আঃ রশিদের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তার ভাইপো আঃ গফুর ঘটনাস্থলে এসে সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগকারীদের নাম ঠিকানা জানতে চান।
এমনকি তিনি ঔদত্য প্রদর্শণ করে বলেন,তারা নিজেদের প্রয়োজনে ইট পুড়াচ্ছেন,তাতে কারোর কিছু করার নেই। এব্যাপারে স্থানীয় জালালপুর ইউপি চেয়ারম্যান এম মফিদুল হক লিটুর নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন,বিষয়টি তার জানা নেই এমনকি বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ইট পোড়ানোয় তার পরিষদ থেকে কোন ট্রেড লাইসেন্স পর্যন্ত নেয়া হয়নি।
এব্যাপারে এলাকাবাসী পরিবেশ দূষণ রোধে ভাটা দু’টি বন্ধে বন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের পাশাপাশি স্থানীয় প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।