তালায় এসিল্যান্ডের ভূমিকায় ঘের মালিক কর্তৃক কর্তনকৃত রাস্তা ভরাট ও কৃত্রিম ড্রেণ অপসারণ

0
520

টাইমস্ ডেস্ক:

সাতক্ষীরা তালার তেঁতুলিয়ার আড়ংপাড়ার মৎস্য ঘেরে পানি সরবরাহের সুবিধার্থে স্কেভেটর দিয়ে সেখানকার মদনপুর বাজার-সেনপুর ইটের সোলিং রাস্তার সাইড কর্তন ও রাতের আঁধারে মূল কার্লভার্ট বন্ধ করে রাস্তা কেটে পাইপ বসিয়ে কৃত্রিম কার্লভার্ট স্থাপনের ঘটনায় সংবাদ প্রকাশে তালা উপজেলা সহকারী কমিশনারের(ভূমি) নির্দেশে নিজ খরচে রাস্তার কর্তনকৃত অংশ মেরামতসহ রাস্তা কেটে পানি সরবরাহের কৃত্রিম কার্লভার্টের ৬টি পাইপ অপসারণ করে নিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ঘের মালিক পলাশ-মোকবুল গং।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সহকারী কমিশনার অনিমেষ বিশ্বাস ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে স্থানীয় সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে সংবাদ প্রকাশে তিনি গত ৪ জুলাই সংশ্লিষ্ট ঘের মালিক যশোরের কেশবপুর থানার হাসানপুরের আবুল সরদারের ছেলে পলাশ সরদার ও মোমিনপুরের রজব মোড়লের ছেলে মোকবুল মোড়লকে ১১ জুলাইয়ের মধ্যে রাস্তার কর্তনকৃত অংশ নিজ খরচে মেরামত ও পানি সরবরাহের কার্লভার্ট’র মুখ উন্মুক্তের নির্দেশ দেন।
এদিকে কৃত্রিম কার্লভার্টের পাইপ অপসারণ করলেও ঐ এলাকার জনস্বার্থে সরকারিভাবে নির্মিত অন্তত ৪ টি কার্লভার্টের মুখে ইট দিয়ে গেঁথে বন্ধ করা হলেও ১টির উন্মুক্ত করা হয়নি। এ প্রসঙ্গে সহকারী কমিশনার বলেন,রাস্তার দু’পাশে ঘের থাকায় ফলাফল হিতে বিপরীত হওয়ার আশংকায় একটি কার্লভার্টের মুখ বন্ধ রাখা হয়েছে।


এলাকাবাসীর আশংকা,রাস্তা কর্তন করে পানি সরবরাহের ড্রেন নির্মাণ করায় রাস্তার একটি বড় অংশ মারাতœক হুমকির মুখে পড়ে। এছাড়া চলতি বর্ষা মৌসুমে মূল কার্লভার্ট বন্ধ থাকায় পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে বিস্তীর্ণ এলাকা পানি বন্দী হয়ে কৃত্রিম বন্যার আশংকা দেখা দেয় বিস্তীর্ণ জনপদে। স্থানীয় ভূক্তভোগী সাধারণ মানুষ এর আগে অভিযোগ করেন যে,ঘের মলিকরা ঐ এলাকার পানি নিষ্কাশনের অন্তত ৪টি বড় কার্লভার্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেয়ায় তালা উপজেলার তেঁতুলিয়া ও কেশবপুরের বিস্তীর্ণ এলাকায় কৃত্রিম জলাবদ্ধতার আশংকা তৈরী হয়েছে।

প্রসঙ্গত,যশোরের কেশবপুর উপজেলার হাসানপুর গ্রামের আবুল সরদারের ছেলে পলাশ সরদার ও মোমিনপুরের রজব মোড়লের ছেলে মোকবুল মোড়ল গং প্রায় ৪ বছর পূর্বে তালার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের আড়ংপাড়া গ্রামের প্রায় ১ শ’৪০ বিঘা জমি ইজারা নিয়ে সেখানে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে আসছেন। প্রথমত বছর খানেক এলাকায় সুষ্ঠু ও পরিকল্পিত উপায়ে মাছের আবাদ করলেও পরে তাদের সুবিধার্থে পর্যায়ক্রমে মদনপুর,সেনপুর এলাকার বিস্তীর্ণ জনপদের পানি নিষ্কাষণের অন্তত ৪টি কার্লভার্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেন। শুধু এখানেই শেষ নয়। নিজ ঘেরের সুষ্ঠু পানি সরবরাহে তিনি ইতোমধ্যে স্কেভটর মেশিন দিয়ে ঐএলাকার ইটের সোলিং রাস্তার সাইড কেটে বড় মাপের ড্রেণ নির্মাণ করেন। খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ এলাকাবাসী সমবেত হয়ে রাস্তার সাইড কর্তনের কাজ বন্ধ করে দেয়। পরে রাতের আঁধারে তারা ড্রেনের কাজ শেষ করেন। স্থানীয় কতিপয় মহলকে ম্যানেজ করে তারা তাদেও অপকর্ম করেন বলে জানিয়েছিলেন ভূক্তভোগীরা। এমনকি তারা ৪ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে প্রকাশ্য দিবালোকে শ্রমিকদের দিয়ে মেইন রাস্তা কর্তন করে ২৫ ইঞ্চির অন্তত ৬ টি সিমেন্টের তৈরী পাইপ বসিয়ে পুনরায় একটি কৃত্রিম পানি সরবরাহের ড্রেন তৈরী করেন। বিভিন্ন পত্রিকান্তে এনিয়ে স্বচিত্র তথ্য বহুল সংবাদ প্রকাশিত হয়। যার প্রেক্ষিতে তালা উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন পূর্বক সত্যতা পেয়ে তা নিজ খরচে অপসারনের নির্দেশ দিলে ঘের মালিকরা রাস্তার কর্তনকৃত অংশ ভরাট করে দেন।
এদিকে ঘের মালিকদের কাছ থেকে বিশেষ সুবিধা প্রাপ্ত একটি মহল সংবাদ প্রকাশ অতঃপর রাস্তা পূর্বের অবস্থানে ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়টিকে পুঁজি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছেন। সংবাদ প্রকাশে সংশ্লিষ্ট সাংবাদিকদের সম্পর্কে তারা বিভিন্ন স্থানে নানা রকম কুৎসা রটিয়ে বেড়াচ্ছেন বলেও অভিযোগ পাওয়াগেছে। সর্বশেষ অবস্থানে চলতি বর্ষা মৌসুমে বিস্তীর্ণ জনপদের পানি নিষ্কাষণে ঠিক কতটুকু ভূমিকা রাখবে সেটাই এখন দেখার বিষয়।