তালায় ইট ভাটায় মাটি আসছে সরকারি খাল কেটে : ট্রাক্টর আতংকে এলাকাবাসী

0
502

সেলিম হায়দার, তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি, খুলনাটাইমস :
সাতক্ষীরার তালার গোনালী নলতার জিআইবি ইট ভাটায় এবার অবৈধভাবে আনা হচ্ছে মহন্দী ঘাঁট কান্দার খাল থেকে লক্ষ লক্ষ ঘণ ফুট মাটি। প্রতিদিন অন্তত অর্ধ ডজন ট্রাক্টর দিয়ে নির্মিত অবৈধ ট্রাকযোগে আনা হচ্ছে অবৈধ মাটি। এতে করে সেখান থেকে একমাত্র ব্যস্ততম সড়কের প্রায় সাত কিঃমিঃ পথ পাড়ি দিয়ে তালা উপজেলা সদরের উপর দিয়ে যাচ্ছে এসব মাটিবাহী ট্রাক। প্রতি দিন অব্যাহত ভাবে চলা এসব যন্ত্রদানবের চাপে মারাতœকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে রাস্তাগুলি। অন্যদিকে দু’টি বাইপাস সড়ক হয়ে পাইকগাছা-খুলনা প্রধান সড়কের উপর দিয়ে চলা যন্ত্রদানবের ভয়ে সারাক্ষণ তটস্থ থাকতে হচ্ছে পথচারীদের। যেকোন সময় সড়কে ঘটে যেতে পারে কোন প্রাণঘাতি দূর্ঘটনা। এমন অবস্থায় ভাটার প্রধান উপকরণ মাটির যোগান দিতে চলা ট্রাক্টর বন্ধে এলাকাবাসী স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
অভিযোগে প্রকাশ,এর আগে তালার মহন্দি এলাকার জনৈক প্রভাবশালী ব্যবসায়ী কল্যাণ বসুর মালিকানাধীণ গোনালীস্থ জিআইবি ব্রিক্সে ইটের প্রধান উপকরণ মাটির যোগান মেটাতে কপোতাক্ষের বন্যা নিয়ন্ত্রণের বাঁধ থেকে চুরি করে মাটি কেটে ইট প্রস্তুত করছিল। কয়েকবার ধরা পড়ে তাদের শ্রমিকরা জরিমাণার শিকারও হয়। তবে এখন পর্যন্ত মালিক পক্ষের কারো বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নিতে পারেনি কেউ। এবার নতুন করে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে তারা পুনরায় সরকারের কারো কাছ থেকে কোন প্রকার অনুমতি না নিয়েই তালার মহন্দীর ঘাঁট কান্দা সরকারী খাল থেকে পুনরায় ট্রাক্টরযোগে নিয়ে আসছে অবৈধ পন্থায় মাটি। এতে নতুন করে সমালোচনার মুখে পড়েছে ইট প্রস্তুতশারী ইট ভাটাটি।
এলাকাবাসীর অভিযোগ,ভাটা কতৃপক্ষ প্রায় একমাস ধরে স্কেভেটর মেশিন দিয়ে খাল থেকে মাটি কেটে প্রতিদিন ভোর থেকে অন্তত ৬ টি ট্রাক্টর দিয়ে নির্মিত অবৈধ যান ট্রাক দিয়ে সেসব মাটি নিয়ে আসছে ইট ভাটায়। এতে তারা মহন্দী হয়ে প্রায় ৫ কিঃমিঃ পথ পাড়ি দিয়ে তালা সদরের উপর দিয়ে আরো ২/৩ কিঃমিঃ প্রধান সড়ক ব্যবহার করছে। প্রতিদিন অবিরাম যন্ত্র দানবের চলাচলে মারাতœকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে রাস্তাগুলি। অথচ স্থানীয় প্রশাসন এব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোন পদক্ষেপই নিচ্ছেননা।
বিশেষজ্ঞদের অভিমত,এরুপ অনবরত ভারী মাটিবাহী ট্রাকের খিপ্র ঝাঁকুনিতে রাস্তার মাটির তলদেশ পর্যন্ত অনবরত কম্পনে রাস্তা মারাতœকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এক সময় তা ধ্বসে পড়ারও আশংকা রয়েছে। অন্যদিকে উপজেলা সদরের উপর দিয়ে এসব নিয়ন্ত্রণহীন যন্ত্রদানবের অবিরাম ছুটে চলায় চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন পথচারীরা। বিশেষ করে উপজেলা সদরে অবস্থিত বিভিন্ন স্কুল,কলেজ ও মাদ্রাসা পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীদের পথ চলা ও রাস্তা পারাপারে তৈরী হয়েছে চরম নিরাপত্তাহীনতা।
এব্যাপারে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক আবুল কাশেম মোঃ মহিউদ্দিন বলেন,তিনি কাউকে কোন সরকারী খাল থেকে মাটি কাটার অনুমতি দেননি। যদি কেউ এভাবে মাটি কেটে রাস্তা নষ্ট করে ইট ভাটায় মাটির যোগান মেটায় তা হলে তা সম্পূর্ণ অবৈধ। বিষয়টি তিনি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেবেন বলেও জানান।
তবে অবৈধভাবে মাটি কেটে প্রধান সড়ক দিয়ে মাটি নেয়ার বৈধতা সম্পর্কে জানতে জিআইবি ইট ভাটার ম্যানেজার প্রকাশ’র নিকট তার ব্যবহৃত মোবাইলে বারংবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার মন্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।