তালায় আড়ংপাড়া এলাকার ঘের মালিক কর্তৃক পানি সরবরাহের ৩টি কার্লভার্ট বন্ধ

0
566

নিজস্ব প্রতিবেদক :
সাতক্ষীরা তালার আড়ংপাড়া এলাকার একটি মৎস্য ঘেরের পানি সরবরাহের সুবিধার্থে স্কেভেটর দিয়ে সেখানকার মদনপুর বাজার-সেনপুর ইটের সোলিং রাস্তার সাইড কর্তন ও মূল কার্লভার্ট বন্ধ করে রাতের আঁধারে রাস্তা কেটে পাইপ বসিয়ে কৃত্রিম কার্লভার্ট নির্মাণ করেছেন ঘের মালিক পলাশ গং। এতে রাস্তার একটি বড় অংশ মারাতœক হুমকির মুখে পড়েছে। এছাড়া চলতি বর্ষা মৌসুমে মূল কার্লভার্ট বন্ধ থাকায় পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে বিস্তীর্ণ এলাকা পানি বন্দীর মুখে পড়েছে বলে অভিযোগ করেছেন,জনপদের ভূক্তভোগী সাধারণ মানুষ।
স্থানীয়দের অভিযোগ,ঘের মলিকরা এর আগে ঐ এলাকার পানি নিষ্কাশনের অন্তত ৩টি বড় কার্লভার্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেয়ায় তালা উপজেলার তেঁতুলিয়া ও কেশবপুরের বিস্তীর্ণ এলাকায় কৃত্রিম জলাবদ্ধতার আশংকা তৈরী হয়েছে।
এলাকাবাসীর অভিযোগে জানাযায়,যশোরের কেশবপুর এলাকার আবুল সরদারের ছেলে প্রভাবশালী পলাশ সরদার,পাটকেলঘাটার বাঁকাল বাবু ও নগর ঘাটার ইনছাপ আলী প্রায় ৪ বছর পূর্বে তালার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের আড়ংপাড়া গ্রামের প্রায় ১ শ’৪০ বিঘা জমি ইজারা নিয়ে সেখানে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে আসছেন। প্রথমত বছর খানেক এলাকায় সুষ্ঠু ও পরিকল্পিত উপায়ে মাছের আবাদ করলেও পরে তাদের সুবিধার্থে পর্যায়ক্রমে মদনপুর,সেনপুর এলাকার বিস্তীর্ণ জনপদের পানি নিষ্কাষণের অন্তত ৩টি কার্লভার্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেন। শুধু এখানেই শেষ নয়। নিজ ঘেরের সুষ্ঠু পানি সরবরাহে তিনি ইতোমধ্যে স্কেভটর মেশিন দিয়ে ঐএলাকার ইটের সোলিং রাস্তার সাইড কেটে বড় মাপের ড্রেণ নির্মাণ করছেন। খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ এলাকাবাসী সমবেত হয়ে রাস্তার সাইড কর্তনের কাজ বন্ধ করে দেয়। তবে এলাকাবাসী জানান,রাতের আঁধারে তারা ইতোমধ্যে ড্রেনের কাজ শেষ করেছে। এলাকাবাসী জানায়,স্থানীয় কতিপয় মহলকে ম্যানেজ করে বৃহস্পতিবার সকালে প্রকাশ্য দিবালোকে শ্রমিকদের দিয়ে মেইন রাস্তা কর্তন করে ২৫ ইঞ্চির অন্তত ৬ টি সিমেন্টের তৈরী পাইপ বসিয়ে পুনরায় একটি কৃত্রিম পানি সরবরাহের ড্রেন তৈরী করেছে।
এব্যাপারে সরেজমিনে গেলে দেখা যায়,সুচতুর ঘের মলিকরা ড্রেন নির্মাণের পর তার দু’মাথায় সুক্ষœ ভাবে মাটি দিয়ে ভরাট করে দিয়েছে। যাতে বর্ষার পানির চাপে সহজেই সেখানকার মাটি সরে পানি সরবরাহ নিশ্চিত হয়। সূত্র জানায়,এর আগে তারা ৩/৪ দিন ধরে স্কেভটর দিয়ে রাতের আঁধারে কর্তনের কাজ করলে এলাকাবাসীর প্রতিরোধে সাময়ীকভাবে তারা কাজটি বন্ধ রাখে। অভিযোগ উঠেছে,পরে এলাকার কতিপয় সুযোগ সন্ধানী চক্রকে ম্যানেজ করে তারা ঐ কার্লভার্টটি তৈরী করেছেন। ভূক্তভোগীদের আশংকা,এতে করে চলতি বর্ষা মৌসুমে এলাকায় কৃত্রিম জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হতে পারে।
এব্যাপারে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ইফতেখার হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিনিধিকে বলেন,সরকারি রাস্তা কাটার এখতিয়ার কারো নেই। যদি এমনটি হয়ে থাকে অবশ্যই সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
এর আগে এনিয়ে তালা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনিমেষ বিশ্বাস সাংবাদিকদের ঘটনাটি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দিলেও এক অশুভ শক্তির বলে ঘের মালিকরা তাদের অপকর্ম সম্পন্ন করে।
সর্বশেষ তারা রাস্তার ক্ষতি ও পানি নিষ্কাষণ পথ বন্ধ’র ঘটনাগুলি তদন্ত পূর্বক জরুরী ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহন করতে সরকারের সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।