তালার জালালপুর ছাত্রলীগের কমিটি গঠনে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ

0
349

পাটকেলঘাটা(সাতক্ষীরা)প্রতিনিধি:
তালা উপজেলার ১১ নং জালালপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের কমিটি গঠনে ইউনিয়ন সভাপতি-সাধারন সম্পাদকের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবী সহ কমিটি গঠনে কারচুপির অভিযোগ করে সংবাদ সম্মেলন করেছে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের ছাত্রলীগ নেতা ও কর্মীরা।
শুক্রবার সকাল ১১টায় পাটকেলঘাটা রিপোর্টার্স ক্লাবে লিখিত সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগ নেতা আকাশ সানা বলেন, উপজেলার ১১ নং জালালপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের কমিটি গঠনে ইউনিয়ন সভাপতি-সাধারন সম্পাদকের বিরুদ্ধে অর্থ লেনদেন দাবী সহ কমিটি গঠনে কারচুপির অভিযোগে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের ছাত্রলীগ নেতা ও কর্মীরা জরুরী ভাবে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তালা উপজেলা ও সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন। সাথে সাথে ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে বহিস্কারের দাবী জানান।
জালালপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড (আটুলিয়া ও দোহার গ্রাম) ছাত্রলীগের কমিটি গঠনর জন্য ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ গত ২১/১০/১৯ তারিখে সভার আহবান করে। সেসময় নেতৃবৃন্দ কৌশলে ছাত্র শিবির ও ছাত্রদলের কয়েকজন সক্রিয় কর্মীকে কমিটির গুরুত্বপূর্ন পদ দেয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওয়ার্ড ছাত্রলীগের নেতা শামীম মোড়ল, সান সানা, সবুজ মোড়ল ও সুরুজ মোল্যা সহ একাধিক ছাত্রলীগ নেতা ও কর্মী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সম্পাদকের নিকট একটি অভিযোগ দায়ের করে। এঘটনার প্রেক্ষিতে ২২/১০/১৯ তারিখে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ সাদী ও সাধারন সম্পাদক মশিউর আলম সুমন প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে উক্ত অভিযোগের তদন্ত করার জন্য ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করেন। কমিটিতে ছাত্রলীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান, ফিরোজ খান ও রায়হান হুসাই একরামুলকে করা হয় এবং একই সাথে গঠিত কমিটি বিলুপ্তি ঘোষনা করা হয়। এর ৪দিন পর ২৬/১০/১৯ তারিখে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি দেবাশীষ অধিকারী ও সাধারন সম্পাদক রাজু ফকির স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আকাশ সানাকে সভাপতি ও শামীম মোড়লকে সাধারন সম্পাদক করে নতুন করে ওই ওয়ার্ডে ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি ঘোষনা করা হয়।
বৃহস্পতিবার দুপুরে ছাত্রলীগ নেতা আকাশ সানা সহ বিক্ষুব্ধ একদল ছাত্রলীগ নেতা ও কর্মীরা অভিযোগ করে বলেন, আকাশ সানাকে সভাপতি করে কমিটি ঘোষনার পর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বিতর্কীত সভাপতি দেবাশীষ অধিকারী তার কাছে টাকা দাবী করে। টাকা না দিলে কমিটি পাল্টিয়ে দেয়া হবে বলে হুমকি দেয়। কিন্তু আকাশ সানা দেবাশীষকে টাকা না দেয়ায় ৩দিন পর ওই ওয়ার্ডে ২১সদস্য বিশিষ্ট পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করে। যা ৩০/১০/১৯ ইং তারিখে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে প্রকাশ করে। এই কমিটিতে রাতারাতি আকাশ সানাকে সভাপতি থেকে সরিয়ে সাধারন সম্পাদক করা হয় এবং ফৌজদারী মামলার আসামী ও কেদ্রীয় ছাত্রদল নেতা আনিছুর রহমান বাবুর ভাগ্নে বিএনপি পরিবারের সদস্য তরিকুল ইসলামকে সভাপতি করা হয়। ছাত্রদলের প্রকাশিত পোষ্টারে ছবি সহ নাম থাকা নিয়ে আলোচিত ও বিতর্কীত সভাপতি দেবাশীষ অধিকারী টাকা না পেয়ে আকাশ সানাকে বাদ দিয়ে বিশেষ সুবিধা প্রাপ্ত হয়ে তরিকুলকে সভাপতি করেছে বলে অভিযোগে বলা হয়।
এবিষয়ে তালা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শেখ সাদী জানান, বিষয়টা কমবেশি অবগত হয়েছি। অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করা হবে এবং দোষ প্রমানিত হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। সাধারন সম্পাদক মশিউর আলম সুমন বলেন, আকাশ সানা সভাপতি ও শামীম মোড়লকে সাধারন সম্পাদক করে ২৬/১০/১৯ তাং যে কমিটি দেওয়া হয়েছে সেটায় আমি জানি। সেখানে অন্য কোন কমিটি দেওয়ার প্রশ্ন আসেনা। যারা এমন কাজ করেছে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।