তালার খেলার মাঠের মাটি কেটে ভরাট করায় ক্ষোভ নানা মহলে

0
517

তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি, খুলনাটাইমস:
সাতক্ষীরার তালার নওয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কতৃপক্ষের বিরুদ্ধে অপরিকল্পিতভাবে মুসলিম এইডের অর্থায়নে ভরাটকৃত স্কুল মাঠের মাটি কেটে নিচু এলাকা ভরাটের অভিযোগ উঠেছে।
গত বর্ষা মৌসুমে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হলে সেখানকার মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয় দু’টিও পানিতে তলিয়ে যায়। এতে তাদের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পানিতে ভিঁজে ক্লাস করতে চরম ভোগান্তির মুখে এনজিও সংস্থা মুসলিম এইডের অর্থায়নে বিদ্যালয় দু’টির একই মাঠে মাটি ভরাটের কাজ হয়।
সম্প্রতি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এসএমসি কমিটির আতœঘাতি সিদ্ধান্তে তাদের একটি নিচু এলাকা ভরাটের জন্য তারা কর্মসৃজন কর্মসূচী ও সূশীলন স্বপ্ন প্রকল্পের লোক দিয়ে ঐমাঠের মাটি কেটে তা পূরণ করছে। এতে করে ভবিষ্যতে পূণরায় মাঠটিতে জলাবদ্ধতা আশংকার পাশাপাশি ছেলে-মেয়েদের খেলা-ধুলা করতে ব্যাপক সমস্যা হবে বলে মনে করছেন সেখানকার অভিভাবকসহ সচেতন মহল।
অভিযোগে জানাগেছে যে, তালা উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের নওয়াপাড়াস্থ নওয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নওয়াপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় একই মাঠের দু’প্রান্তে অবস্থিত। কপোতাক্ষ’র নাব্যতা হ্রাসে বর্ষা মৌসুমে বিস্তীর্ণ এলাকার পানি নিষ্কাষিত হতে না পেরে দীর্ঘ দিন যাবৎ স্থায়ী জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছিল। এতে বিদ্যালয় দু’টিও তলিয়ে যায় কৃত্রিম বন্যার পানিতে। ফলে দীর্ঘ দিন যাবৎ তাদের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা পানিতে ভিঁজে বিদ্যালয়ে গিয়ে বহু কষ্ঠে ক্লাস করছিল।
এমন পরিস্থিতিতে বে-সরকারি সাহায্যসেবী প্রতিষ্ঠান মুসলিম এইড তাদের অর্থায়নে বিদ্যালয় দু’টির মাঠটি মাটি ভরাট করলে স্বস্থি ফেরে শিক্ষার্থী সহ জনপদের সাধারণ মানুষের। সম্প্রতি প্রাথমিক বিদ্যালয় কতৃপক্ষ একটি আতœঘাতি সিদ্ধান্ত নেয় তাদের আরো এক খন্ড নিচু জমি মাটি ভরাট করতে।
যার প্রেক্ষিতে তারা সরকারের কর্মসৃজন কর্মসূচী ও সূশীলন স্বপ্ন প্রকল্পের লোক দিয়ে ঐ ভরাটকৃত মাঠের মাটি কেটে নিয়ে তাদের নিচু জমি ভরাট করছে। এতে এলাকায় চাপা ক্ষোভ বিরাজ করলেও কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছেনা। বৃহস্পতিবার খবর পেয়ে ঘঁনাস্থলে গেলে দেখা যায়, স্কুল কতৃপক্ষ গত প্রায় ১ সপ্তাহ যাবৎ প্রকল্প দু’টির লোকদের দিয়ে দু’টি স্কুলের একই মাঠ থেকে মাটি কাটছে।
নওয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মেরিনা সুলতানা বলেন, এসএমসি কমিটির সিদ্ধান্তে মাঠের মাটি কেটে নিচু এলাকা ভরাটের কাজ চলছে।
তালা উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আসলাম হোসেন জানান, স্কুল কতৃপক্ষ তাদের সিদ্ধান্তে কাজটি করছে এব্যাপারে তাদের কিছুই করার নেই। তবে মাঠের মাটি কেটে নি¤œাঞ্চল ভরাটের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া নেওয়া সম্ভব হয়নি নওয়াপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কারো।
এদিকে স্কুল মাঠের উন্নয়ন প্রকল্পের মাটি অন্য প্রকল্পের আওতায় কেটে নিচু এলাকা ভরাট ঠিক কোন ধরণের উন্নয়ন এমন প্রশ্ন সামনে রেখে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন এলাকাবাসী। তাদের দাবি এখনি বন্ধ হোক মাটি কর্তন। তা নাহলে অদূর ভবিষ্যতে ফের জলাবদ্ধতার কবলে পড়ে বিদ্যালয় দু’টি ক্ষতিগ্রস্থ হলে তার দায় কেনেবে?
শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী বলেন,সমতল মাঠের মাটি কেটে নিচু করায় মাঠের শ্রীকটুর পাশাপাশি খেলাধুলা বন্ধ রয়েছে। ভবিষ্যতে মাঠের এক প্রান্ত উচু ও অপর প্রান্ত নিচু হওয়ায় কখনো সেখানে খেলার পরিবেশ ফিরবেনা বলে মন্তব্য করে তারা মাটি কর্তনের সিদ্ধান্তকে কতৃপক্ষের আতœঘাতি বলে মনে করেন তারা।
#