ডুমুরিয়ায় ভাটাশ্রমিক মুনছুর নিহতের ৪০দিন পর আদালতে মামলা

0
395
শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি:
ডুমুরিয়ায় ইটভাটা শ্রমিক মুনছুর মোড়ল নিহতের ৪০ দিন পর আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত ৫ জুন নিহদের বাবা আজিজুল মোড়ল বাদী হয়ে ৩ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামী করে খুলনা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী আদালত ‘খ’ অঞ্চলে মামলাটি দায়ের করেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, যশোর জেলার কেশবপুর থানার শিকারপুর গ্রামস্থ আজিজুর রহমান ওরফে আজিজার মোড়লের ছেলে মুনছুর মোড়ল (১৮) অভাব অনটনে ডুমুরিয়ার খড়িয়া এলাকায় কালুর ইটভাটা শ্রমিকের কাজ করতে আসে। বেশ কিছুদিন কাজ করার পর ভাটার সর্দার রেজাউল মোড়লের নিকট তার অনেক টাকা পাওনা হয়। এক পর্যায়ে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে একই এলাকার সর্দার রেজাউল মোড়ল, তার ভাই আছাদ মোড়ল ও হান্নান মোড়লের সাথে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এমনকি তাদের হুমকিতে মুনছুর তার নিজস্ব একটি ভ্যানগাড়ী রেখে ওই ভাটা ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয় এবং মাঝে মধ্যে এসে পাওনা টাকার তাগিদ দেয়। এমতবস্থায় গত ১ মে রাত ১০টার দিকে উপজেলার কাটেঙ্গা গ্রামস্থ তেতুলতলা এলাকার ডাইন নামক বিলের মধ্যে এক নির্জন বাগানে থাকা অর্জুন গাছের ডাল থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় মুনছুরের লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার একদিন পর ডুমুরিয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয় যার নং-২১/১৮। এদিকে ঘটনার কিছুদিন পর নিহতের বাবা ওই ইটভাটায় গিয়ে ছেলে হত্যার খোঁজ খবর নিতে গেলে আসামীরা তাকে মামলা না করার জন্য বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দেয়। উপায়ন্ত না পেয়ে ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে আদালতের স¦রনাপন্ন হয়েছেন ভুক্তভোগী বাবা আজিজার মোড়ল। বিজ্ঞ আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ওসি ডুমুরিয়াকে নির্দেশ দিয়েছেন।