ডুমুরিয়ায় জামায়াতের কর্মী শ্রমিক লীগের সম্পাদক!

0
377

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি:
জামায়াত কর্মী ও নাশকতা মামলার আসামী জাকির সরদারকে ডুমুরিয়া উপজেলার মাগুরাঘোনা ইউনিয়নে জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। যাচাই বাচাই ছাড়া তড়িগড়িভাবে এ কমিটি গঠন করায় নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। সংশ্লিষ্ট সুত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
জানা যায়, কেন্দ্রীয় ঘোষনানুযায়ী জাতীয় শ্রমিক লীগ খুলনা জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দের পরামর্শে বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়। তারই ধারাবাহিকতায় গত অক্টোবর মাসে উপজেলার শ্রমিক লীগ মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের ৩১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটির অনুমোদন দেয়। ওই কমিটিতে স্থানীয় জামায়াত কর্র্মী জাকির সরদারকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।
সে ২০১৩ সালের ১৮ ফেব্রæয়ারী তারিখে খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কে ডুমুরিয়ার মালতিয়া মোড়ে গাড়ি ভাংচুর, পুলিশের উপর হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ডুমুরিয়া থানায় ২৪ নম্বর মামলার ৩৭ নম্বর আসামী। জাকির সরদার(৩৪) কাঞ্চনপুর গ্রামের খোরশেদ সরদারের ছেলে। এ বিষয়ে জাকির সরদারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোনটি রিসিভ করেননি।
এদিকে উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন আ’লীগের এক নেতা শ্রমিক লীগের জেলা শাখার নেতৃবৃন্দের সাথে পরামর্শ্ব করে ওই কমিটি জমা দেন। পরে আমি জানতে পারি জাকিরের নামে নাশকতা মামলা রয়েছে।’
মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আবুল হোসেন ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, ‘আমার ইউনিয়নে শ্রমিক লীগের কমিটি গঠন করা হয়েছে খুলনায় বসে। যা আদৌ আমাকে কিছুই জানানো হয়নি। জাকির সরদার একজন স্থানীয় জামায়াত কর্মী। তাকে কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করায় স্থানীয় দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।’
প্রসঙ্গত, ঐরূপভাবে ডুমুরিয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের কমিটিতেও অনিয়ম করা হয়েছে। ১৯ ফেব্রæয়ারী’১৬ সালে দুই বছর মেয়াদের কমিটি অনিয়ম তান্ত্রিকভাবে মেয়াদ উর্ত্তীন্নের আগে চলতি সালের ১৭ আগস্ট তারিখে অর্থাৎ শোকের মাসে বিলুপ্ত করে তড়িঘড়িভাবে ডুমুরিয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের নতুন কমিটি ঘোষনা দেয় জেলা কমিটি।