ডুমুরিয়ায় আদালতের আদেশ উপেক্ষা করে মাছ ধরার অভিযোগ

0
365

ডুমুরিয়া (বাগেরহাট) প্রতিনিধি, খুলনাটাইমস:
ডুমুরিয়ার নিচুখালী গ্রামের প্রভাষ চন্দ্র সরদার আদালতের আদেশ অমান্য করে প্রতিপক্ষের একটি মৎস্য ঘেরের মাছ ধরে নিলেন তার সাঙ্গ-পাঙ্গরা। এ ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা ছিল রহস্য জনক। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকালে উপজেলার কুলবাড়ীয়া-নিচুখালী এলাকায়।
মামলার বিবরন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আটলিয়া ইউনিয়নের নিচুখালী গ্রামের মৃত শরৎ চন্দ্র সরদারের ছেলে প্রভাষ চন্দ্র সরদারের সাথে একই গ্রামের বিধান সরদার ও পঙ্কজ সরদারের জমিজমা সংক্রান্ত একটি মৎস্য ঘের নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে প্রভাষ সরদার বাদী হয়ে ২০১৭ সালের ১১ ডিসেম্বর প্রতিপক্ষ বিধান সরদারসহ ৩ জনের নাম উল্লেখ করে খুলনা অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। যার এমপি নং-৬৭৭/১৭।
ওইদিনই দীর্ঘ শুনানী শেষে বিজ্ঞ আদালত মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত নালিশী মৎস্য ঘেরে কোন পক্ষ যাতে মাছ ধরতে না পারে তা নিশ্চিত করতে ডুমুরিয়া থানার ওসিকে নির্দেশদেন। আদালতের নির্দেশ মোতাবেক থানা পুলিশ উভয় পক্ষকে নোটিশও প্রদান করেন।
কিন্তু গত বুধবার সকালে মামলার বাদী প্রভাষ সরদার তার সহযোগী নির্মল শীলসহ দলবল নিয়ে আদালতের আদেশ উপেক্ষা করে ওই মৎস্য ঘেরে মাছ ধরতে থাকে। এ সময় প্রতিপক্ষ বিধানের ছেলে বিপ্লব সরদার বাঁধা দিলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, হুমকি ও মারপিঠ করে আহত কওে এবং প্রায় ২০ হাজার টাকার মাছ লুট করে নেয়।
এ ঘটনা থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে উভয়পক্ষের ৩ জনকে আটক করে। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। এ প্রসঙ্গে থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিল হোসেন জানান, ঘটনাটি শুনেছি এবং আগামী ২৬ জানুয়ারী উভয়পক্ষকে থানায় বসাবসির জন্য ডেকেছি।
#