জেলা পর্যায়ে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহের উদ্বোধন

0
374

তথ্য বিবরণী :

আজ শনিবার থেকে ৯ নভেম্বর পর্যন্ত (১ম ধাপ) সারাদেশে পালিত হচ্ছে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ-২০১৭। এ উপলক্ষে সকালে খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার মুহাম্মদ নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশুদের কৃমি নাশক ট্যাবলেট খাওয়ানোর মাধ্যমে জেলা পর্যায়ের কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহের উদ্বোধন করেন খুলনা সিভিল সার্জন ডাঃ এ এস এম আব্দুর রাজ্জাক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিভিল সার্জন বলেন, কৃমি মূলত মানুষের পেটে পরজীবি হিসেবে বসবাস করে। কৃমি হতে অনেক রকম রোগ হতে পারে। কৃমি শিশুদের মেধার বিকাশে ক্ষতিগ্রস্ত করে এবং শিশুরা মারাত্মকভাবে অপুষ্টিতে ভোগে। এজন্য সকল শিশুকে কৃমি নাশক ট্যাবলেট সেবন এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যদেরও এ ট্যাবলেট খেতে হবে। এটি খালি পেটে খাওয়ানো যাবে না। ভরা পেটে খেতে হবে। বর্তমান সরকার দেশের সকল শিশুকে সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ শতভাগ সফল করার লক্ষ্যে তিনি সরকারের পাশাপশি বেসরকারি সংস্থা, শিক্ষক ও অভিভাবকসহ সকল জনগণের সক্রিয় সহযোগিতা কামনা করে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন বটিয়াঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাশীষ চৌধুরী, উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ রাম চন্দ্র সাহা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নারায়ণ চন্দ্র মন্ডল এবং উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ হাবিবুর রহমান। মুহাম্মদ নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মনিরুজ্জামান ময়না অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

পরে সিভিল সার্জন শিশুদের কৃমি নাশক ট্যাবলেট খাওয়ানোর মাধ্যমে সপ্তাহব্যাপী এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

এ বছর খুলনা জেলার ৯টি উপজেলার ১ হাজার ৭শত ৮৭টি প্রাথমিক ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মোট ২ লাখ ৪০ হাজার ১শত ৫৮ জন শিশুকে কৃমি নাশক ট্যাবলেট খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ১ম ধাপে সপ্তাহব্যাপী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫-১২ বছরের সকল শিক্ষার্থী এবং স্কুল বহির্ভূত, ঝড়েপড়া, পথশিশু ও শ্রমজীবী শিশুদের বিনামূল্যে কৃমি নাশক ট্যাবলেট Vermox  (Mebendazole 500mg) খাওয়ানো হবে। এছাড়া খুলনা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় (১ম ধাপ) ৪শত ৯৮টি প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৯৩ হাজার ৮শত ৭২জন শিশুকে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

 

স্বাস্থ্য অধিদফতরের ফাইলোরিয়াসিস নির্মূল ও কৃমি নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম-এর সহযোগিতায় খুলনা সিভিল সার্জন অফিস ও বটিয়াঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।