জাল কাগজপত্র বানিয়ে আমদানীকৃত কয়লা অন্যত্র বিক্রির চেষ্টার অভিযোগে আটক ২

0
344

মোংলা প্রতিনিধি:
জাল কাগজপত্র তৈরী করে ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানীকৃত কয়লা প্রতারণার মাধ্যমে অন্যত্র বিক্রির চেষ্টার অভিযোগে মোংলায় কার্গো জাহাজের মাষ্টার ও অপর এক দালালকে আটক করেছে পুলিশ। তবে এ জাল-জালিয়াত চক্রের মুল হোতারা রয়ে গেছে ধরা ছোয়ার বাইরে।
জানা গেছে, মেসার্স এস এইচ এন্ড কোং এর কার্গো জাহাজ এম,ভি সাইদুল বদরুল (এম নং ৩২৩৪) মোংলা বন্দরে অবস্থানরত এম,ভি টলিমাস নামক বিদেশী জাহাজ থেকে গত ১১ নভেম্বর ৬০০ মেট্টিক টন কয়লা বোঝাই করে। পরবর্তিতে ওই কার্গোর মালিক খালিদ ভূয়া বোট নোট তৈরী করে (জাল কাগজপত্র) ৬০০ টনের স্থলে ৭২০ টন কয়লা দেখিয়ে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার নুরুজ্জামান তালুকদারের মালিকানাধীন মুন বিক্সস ফিল্ডের কাছে তা বিক্রী করার কথা বলে নগদ ৫০ লাখ টাকা ও ১৯ লাখ টাকার চেক নয়। কিন্তু কার্গো মালিক খালিদ ওই ইট ভাটা কোম্পানীর কাছে কয়লা না দিয়ে তা অন্যত্র বিক্রি করার চেষ্টা চালায়। এ নিয়পপ ইট ভাটা কোম্পানী মোংলা থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ রবিবার রাতে কার্গো জাহাজের মাষ্টার আলাউদ্দিন ও কয়লা বিক্রিকারীর দালাল হাবিবকে আটক করে।
জানা গেছে, জাল কাগজ পত্র তৈরীর মাধ্যমে অতিরিক্ত পরিমাপ দেখিয় যে কার্গো থেকে ওই কয়লা বিক্রির কথা বলে নগদ টাকা ও চেক নেয়া হয়েছে তার মালিক মোজাফফার ও খালিদ নামে দু’ভাই। এরা মোংলা বন্দর পোটারপাড়া ট্রেডার্স নামে একটি ষ্টিভিডরস কোম্পানীর লাইসেন্স ভাড়া নিয়ে ব্যবসার নামে নানাভাবে প্রতারণা করে আসছে।
এ ব্যাপারে মোংলা থানার এস আই মোস্তফা বলেন, কার্গোর মাষ্টার ও দালালকে আটক করা হলেও প্রতারণার ঘটনার মূল হাতা খালিদ ও তার সহযোগীদের আটক করা সম্ভব হয়নি। এদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে প্রতারক চক্রের অনেক কাহিনী বেরিয় আসতে পারে। #