জারাগোজাকে উড়িয়ে দিয়ে কোপা ডেল রে’র কোয়ার্টার ফাইনালে মাদ্রিদ

0
286

খুলনাটাইমস স্পোর্টস : রিয়াল জারাগোজাকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে কোপা ডেল রে’র কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। এর মাধ্যমে টানা ২০ ম্যাচে অপরাজিত থাকলো গ্যালাকটিকোরা। লা রোমারেডার মাঠে রিয়ালের হয়ে গোলগুলো করেছেন রাফায়েল ভারানে, লুকাস ভাসকুয়েজ, ভিনিসিয়াস জুনিয়র ও করিম বেনজেমা। এই ম্যাচেও মাঠে ছিলেন না ইনজুরি আক্রান্ত দুই তারকা গ্যারেথ বেল ও এডেন হ্যাজার্ড। ম্যাচের শেষের দিকে বদলী হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন ফ্রেঞ্চম্যান করিম বেনজেমা। শনিবার এ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে মাদ্রিদ ডার্বিতে বেনজেমা মূল একাদশে ফিরবেন, এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন রিয়াল বস জিনেদিন জিদান। লা লিগায় বার্সেলোনার থেকে তিন পয়েন্ট এগিয়ে শীর্ষে রয়েছেন মাদ্রিদ। নগর প্রতিদ্বন্দ্বিদের বিপক্ষে সেই লিড ধরে রাখার প্রত্যয় নিয়েই মাঠে নামনে জিদানের দল। নতুন কোচ কিকে সেতিয়েনের অধীনে নিজেদের মানিয়ে নিতে কিছুটা হলেও সমস্যায় পড়েছে বার্সেলোনা। অন্যদিকে দিয়েগো সিমিওনের পরিকল্পনা থেকে বেরিয়ে আসার পথ খুঁজছে এ্যাথলেটিকো। সব মিলিয়ে লা লিগার শীর্ষস্থানীয় এই দলদুটোর তুলনায় সাম্প্রতিক সময়ে মাদ্রিদ বেশ ফর্মে রয়েছে। রোববার রিয়াল ভায়াদোলিদের বিপক্ষে জয়ের পর জিদান বলেছিলেন তার দলের এগিয়ে যাবার মূলমন্ত্রই হলো রক্ষনভাগের সাফল্য। জারাগোজার বিপক্ষে কোন গোল হজম না করা এই সাফল্যের আরেকটি উদাহরণ। গত নয় ম্যাচে প্রতিপক্ষ দলগুলো মাত্র তিনবার মাদ্রিদের জালে বল প্রবেশ করাতে পেরেছে। এই ধারা আগামী মাসে পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ১৬’র ম্যাচেও বজায় রাখতে চায় গ্যালাকটিকোরা। গোঁড়ালির ইনজুরি কাটিয়ে হালকা অনুশীলনে ফিরেছেন বেলজিয়ান তারকা হ্যাজার্ড। সিটির বিপক্ষে তার দলে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে। হ্যাজার্ডের এ্যাটাকিং ফিটনেস দলে নি:সন্দেহে বাড়তি শক্তি যোগাবে। স্পেনের শীর্ষ ঘরোয়া লড়াইয়ে জারাগোজা একসময় নিজেদের দারুণভাবে প্রতিষ্ঠিত করেছিল। কিন্তু ২০১৩ সালে দ্বিতীয় টায়ারে নেমে যাবার পর আর মূল লিগে ফিরে আসতে পারেনি। কোচ ভিক্টর ফার্নান্দেজ কাল আটটি পরিবর্তন করে দল সাজিয়েছিলেন, যেখানে ছিলেন বরুসিয়া ডর্টমুন্ড ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ৩০ বছর বয়সী সাবেক অভিজ্ঞ জাপানী মিডফিল্ডার শিনজি কাগাওয়া। অন্যদিকে জিদানের বিবেচনায় মূল দলে ফিরেছেন ভিনসিয়াস, লুকা জোভিচ, ভাসকুয়েজ ও হামেস রড্রিগেজ। তবে থিবাট কুর্তোয়ার পরিবর্তে গোলবার সামলানোর দায়িত্ব পড়েছিল ফ্রেঞ্চ গোলরক্ষক আলফোনসে আরেওলার ওপর। ৬ মিনিটে টনি ক্রুসের কর্ণার থেকে রিয়ালকে এগিয়ে দেন ভারানে। ৩২ মিনিটে আবারো ক্রুসের সহায়তায় ব্যবধান দ্বিগুন করেন ভাসকুয়েজ। বিরতির পর জারাগোজা আরো বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে উঠে। কিন্তু তাদের এই কৌশল কাজে দেয়নি। বরং মাত্র ৭ মিনিটের মধ্যে আরো দুই গোল হজম করে বড় পরাজয়ের লজ্জা পায় স্বাগতিকরা। ৭৩ মিনিটে ভিনসিয়াসের পর ৭৯ মিনিটে কারভাহালের ক্রস থেকে বেনজেমা দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন।