জহির-রশিদের স্পিন বার্তা দিয়ে রাখল বাংলাদেশকে

0
320

খুলনাটাইমস স্পোর্টস: মাত্র ৮ ওভার হাত ঘুরিয়েছেন রশিদ খান। জহির খান আরেকটু বেশি। তাতেই নাকাল বিসিবি একাদশের ব্যাটসম্যানরা। আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ কী হবে, সেই বার্তা দিয়ে রাখলেন জহির-রশিদরা। সামলাতে হবে আফগানদের স্পিন বিষ।
চট্টগ্রামে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে বিসিবি একাদশ গুটিয়ে গেছে মাত্র ১২৩ রানে। তরুণ, অভিজ্ঞ ও ঘরোয়া ক্রিকেটের পারফরমারদের মিলিয়ে বিসিবি একাদশের ব্যাটিং লাইন আপ ছিল যথেষ্টই সমৃদ্ধ। কিন্তু তারা দাঁড়াতেই পারেনি আফগান স্পিনের সামনে। এখনও পর্যন্ত কেবল একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা চায়নাম্যান বোলার জহির ১১.৩ ওভার বোলিংয়ে ৫ উইকেট নিয়েছেন ২৪ রানে। অধিনায়ক রশিদের লেগ স্পিনে ৩ উইকেট এসেছে ২৬ রানে।আগের দিন টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা আফগানিস্তান দ্বিতীয় দিন সকালে ব্যাট করে আর ১১ ওভার। যোগ করে ৪৭ রান। ইনিংস ঘোষণা করে তারা ৯ উইকেটে ২৮৯ রান নিয়ে। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই ধুঁকেছে বিসিবি একাদশ। ওপেনার সাব্বির হোসেন ২৬ বলে ৪ রান করে আউট হন বাঁহাতি পেসার শাপুর জাদরানের বলে। আরেক ওপেনার এনামুল হক একটি করে চার ও ছক্কায় ভালো কিছুর ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। কিন্তু ৩৫ বলে ১৯ রান করা ব্যাটসম্যানকে বিদায় করেন রশিদ। তিনে নামা ফজলে মাহমুদ রাব্বি ৮ রানে আউট হয়েছেন বাঁহাতি পেসার সায়েদ শারজাদের বলে। বাকি সব উইকেটই নিয়েছেন স্পিনাররা। জহিরের প্রথম শিকার নাঈম ইসলাম। ঘরোয়া ক্রিকেটে কয়েক বছর ধরে টানা পারফর্ম করে আসা অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান অনেক দিন পর সুযোগ পেয়েছিলেন জাতীয় পর্যায়ের কোনো ম্যাচে। কিন্তু সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি তিনি। ফিরেছেন ৩২ বলে ১৩ রানে। আগের দিন বোলিংয়ে সাফল্য পাওয়া আল আমিন ব্যাটিংয়েও দলের সর্বোচ্চ স্কোরার। সেটি কেবল ২৯ রান করেই। ৫ চারের ইনিংসটায় বড় কিছুর ইঙ্গিত ছিল। আল আমিন পারেননি পূর্ণতা দিতে। অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান ও চট্টগ্রামেরই ছেলে ইরফান শুক্কুর পারেননি প্রতিরোধ গড়তে। তরুণ ফারদিন হোসেন একটি করে চার ও ছক্কায় ১৪ রান করেই বিদায় নেন। শেষ দুই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে জহির পূর্ণ করেন ৫ উইকেট। আফগানদের আরেক স্পিনার মোহাম্মদ নবি অবশ্য উইকেট পাননি। লেগ স্পিনার কাইস আহমেদ বোলিং পেয়েছেন ২ ওভার।
আফগানিস্তান দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে বিনা উইকেটে ১৪ রান করার পর সমাপ্তি টানা হয় ম্যাচের।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
আফগানিস্তান ১ম ইনিংস: ৯৯ ওভারে ২৮৯/৯ (ডি.) (আগের দিন ২৪২/৮) ( আফসার ৩৫*, রশিদ ১৩, কাইস ২৩*; মেহেদি রানা ১০-০-৩২-০, মানিক ১২-২-৩৪-০, সাকিল ১৭-৬-৩৬-০, সুমন ১৯-৮-৪৩-৩, জুবায়ের ১৯-১-৬৮-০, গালিব ৪-০-১৮-০, আল আমিন ১৮-৩-৫১-৪)।
বিসিবি একাদশ ১ম ইনিংস: ৪৪.৩ ওভারে ১২৩ (এনামুল ১৯, সাব্বির ৪, ফজলে মাহমুদ ৮, নাঈম ১৩, আল আমিন ১৯, সোহান ১৫, ইরফান ৯, ফারদিন ১৪, সুমন ৩, মেহেদি রানা ০, মানিক ০*; ইয়ামিন ৫-১-১২-০, শাপুর ৫-২-৪-১, নবি ৮-২-১৮-০, রশিদ ৮-১-২৬-৩, শারজাদ ৫-০-২৩-১, জহির ১১.৩-৩-২৪-৫, কাইস ২-০-১০-০)।
আফগানিস্তান ২য় ইনিংস: ৩.৫ ওভারে ১৪/০
ফল: ম্যাচ ড্র