ছয় বাংলাদেশিকে বিজিবির কাছে হস্তান্তর

0
314

 

খুলনা টাইমস প্রতিনিধি
সাতক্ষীরা জেলাঅবৈধভাবে ভারতে অনুপ্রবেশের দায়ে আটক হওয়া ছয় বাংলাদেশিকে সাতক্ষীরার কলারোয়া সীমান্ত দিয়ে বিজিবির কাছে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। কলারোয়া উপজেলার পৃথক সীমান্ত দিয়ে তাদের হস্তান্তর করা হয়।

বিজিবি সূত্র জানায়, রবিবার (১২ নভেম্বর) দুপুরে কলারোয়া উপজেলার চন্দনপুর ইউনিয়নের হিজলদী সীমান্তের এমসি ১৪ পিলারের কাছে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি থানার বিচোট গ্রামের সাহেব আলী গাজীর ছেলে সাগর গাজীকে (১৯) হস্তান্তর করা হয়।

সূত্র আরও জানায়, ২/৩দিন আগে অবৈধপথে ভারতে গিয়ে শনিবার সন্ধ্যায় বিএসএফের হাতে আটক হয় বাংলাদেশি যুবক সাগর। পতাকা বৈঠকে বিজিবির পক্ষে নেতৃত্ব দেন হিজলদী ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার ওমর ফারুক আর বিএসএফের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ভারতের আড়শিকড়ি ক্যাম্পের এসআই মরমু। সাগর গাজীকে কলারোয়া থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

এদিকে রবিবার (১২ নভেম্বর) দুপুরে কলারোয়া থানার ওসি বিপ্লব কুমার নাথ জানান, শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার চন্দনপুর মেইন পিলার ১৪/১ এসআরবির জিরো পয়েন্টে বিএসএফ ও বিজিবির মধ্যে এক পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। পতাকা বৈঠক শেষে বাগেরহাটের খেজুরবাড়ীয়া গ্রামের সৈয়দ হাওলাদারের স্ত্রী সাদিয়া বেগম (৩৫), একই জেলার মোড়লগঞ্জের বারুইখালী গ্রামের বিল্লাল সিকদারের স্ত্রী নাজমা আক্তারকে (১৯) হস্তান্তর করে বিএসএফ। এ ঘটনায় হিজলদী বিওপির নায়েক রায়হানুল ইসলাম বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় একটি পাসপোর্ট আইনে মামলা দায়ের করেছে।

তিনি আরও বলেন, ‘কাঁকডাঙ্গা বিওপির ল্যান্স নায়েক মইউদ্দিন বাদী হয়ে মংলার গোয়ালীরমাঠ এলাকার জালাল শেখের ছেলে জাহিদুল শেখ (২০), তার স্ত্রী ময়না খাতুন (১৯) ও একই এলাকার ইব্রাহিম শেখের ছেলে সবুজ শেখকে (২০) কলারোয়া থানায় সোপর্দ করে। আটক ব্যক্তিরা অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশকালে বিএসএফ তাদের আটক করে। পরে তাদের কলারোয়া উপজেলার ভাদিয়ালী সীমান্তের মেইন পিলার ১৩/৩ এসআর-৬ আরবির কাছে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বিএসএফ হস্তান্তর করে। এ ঘটনায় কাঁকডাঙ্গা বিওপির ল্যান্স নায়েক বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।