ছোট্ট লাবনীকে গোয়াল ঘরে আটকে রাখতো সৎ মা : শিশু নির্যাতন মামলায় গ্রেফতার ৩

0
602

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি:
ডুমুরিয়ায় সৎ মা কর্তৃক শিশু নির্যাতনের ঘটনায় ৩ জনকে আসামী করে শিশু আইনে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় ৪ নভেম্বর শনিবার সৎ মা সহ তিনজনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করেছে থানা পুলিশ।
পুলিশ ও মামলার বিবরন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আইতলা গ্রামের আবজাল খান’র বড় স্ত্রী একমাত্র কন্যা লাবনী খাতুন (৬) কে রেখে অসুস্থ হয়ে মারা যান। পরে দ্বিতীয় স্ত্রী সংসারে আসার পর সৎ মেয়েকে অমানুষিক নির্যাতন করতে থাকে। প্রায় এক বছর ধরে ওই সৎ মেয়েকে গোয়াল ঘরে দরজা দিয়ে আটকে রাখতো পরিবারের লোকজন। এ খবর উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানতে পেরে থানা পুলিশকে জানায়। পুলিশ তৎিক্ষনিক ঘটনাস্থল গিয়ে নির্যাতিত অবরুদ্ধ শিশু লাবনী কে উদ্ধার করে এবং পরিবারের তিন জনকে আটক করে।
এ ঘটনায় উপজেলা সমাজসেবা অফিসের ইউনিয়ন সমাজকর্মী আফছার উদ্দিন বাদী হয়ে লাবনীর পিতা আবজাল খান (৪৬), সৎ মা রুপা বেগম (৩০) ও দাদী মর্জিনা বিবি (৭০) কে আসামী করে শনিবার ডুমুরিয়া থানায় শিশু আইন ২০১৩ এর ৭০ ধারায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। যার নং-০২। এ প্রসঙ্গে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিল হোসেন বলেন, মামলার এজাহারভুক্ত তিন জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।