ছন্নছাড়া বাংলাদেশের ইনিংস হার

0
330

স্পোর্টস ডেস্ক: দ্বিতীয় ইনিংসেও বদলায়নি বাংলাদেশের চেহারা। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও আসা-যাওয়ার মিছিলে ব্যস্ত ছিলেন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশ সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিল ২০১৪ সালে। সিরিজের দুই টেস্টেই বাংলাদেশের সঙ্গী হয়েছিল বড় ব্যবধানের পরাজয়। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে ১০ উইকেটে হারের পর দ্বিতীয় টেস্ট হারে ২৯৬ রানে। ২০১৪ থেকে ২০১৮। মধ্যে কেটে গেছে দীর্ঘ চার বছর। কিন্তু চার বছরেও ভাগ্য ফেরেনি বাংলাদেশের। চার বছর পর সাদা পোশাকে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে খেলতে নেমে যেন আরও ছন্নছাড়া বাংলাদেশ।

আইপে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের সঙ্গী হয়েছে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়ের লজ্জা। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে সাকিব আল হাসানের দল হেরেছে এক ইনিংস ও ২১৯ রানের ব্যবধানে।

অ্যান্টিগায় স্যার ভিভ রিচার্ডস স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের চেয়ে ৩৬৩ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসেও বদলায়নি বাংলাদেশের চেহারা। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও আসা-যাওয়ার মিছিলে ব্যস্ত ছিলেন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা। ব্যাটসম্যানদের হতশ্রী ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস গুটিয়ে যায় ১৪৪ রানে।

দলীয় ১৪ রানেই বিদায় নেন ওপেনার তামিম ইকবাল। আউট হওয়ার আগে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের ব্যাট থেকে আসে ১৩ রান। মুমিনুল হক বিদায় নেন রানের খাতা খোলার আগেই। দুই রানের ব্যবধানে বিদায় নেন আরেক ওপেনার লিটন দাস। প্রথম ইনিংসে ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের ব্যাট থেকে ২৫ রান এলেও দ্বিতীয় ইনিংসে করেছেন মাত্র ২ রান।

অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে সঙ্গে নিয়ে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেছিলেন মুশফিকুর রহিম। কিন্তু বাধা হয়ে দাড়ান শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। ডানহাতি এই পেসারের শিকারে পরিণত হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন সাকিব-মুশফিক দুজনই। আউট হওয়ার আগে চতুর্থ উইকেট জুটিতে দুজন মিলে যোগ করতে পেরেছিলেন মাত্র ২০ রান। সাকিব ১২ ও মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ৮ রান।

সাকিব-মুশফিকের বিদায়ের পর উইকেটে থিতু হতে হতে পারেননি মেহেদী হাসান মিরাজও। এরপর নুরুল হাসান সোহানকে সঙ্গে নিয়ে দ্বিতীয় দিনের বাকি সময়টুকু নিরাপদে কাটিয়ে দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৬ উইকেটে ৬২ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেন তারা।

দিনের প্রথম বলেই বিদায় নেন মাহমউদুল্লাহ রিয়াদ। কামরুল ইসলাম রাব্বিও স্থায়ী হতে পারেননি ক্রিজে। ৭ রান আসে তার ব্যাট থেকে। ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মিছিলেও ব্যতিক্রম ছিলেন নুরুল হাসান সোহান। উইকেটের এক প্রান্ত আগলে রেখে ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান তুলে নেন আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি।

৩৬ বলে ৬ চার ও ১ ছয়ে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করার পথে রুবেল হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে গড়েন ৫৫ রানে জুটি। এই জুটিতে ভর করে দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের দলীয় সংগ্রহ ১০০ পেরোয়। আউট হওয়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৬৪ রান। টেস্টে এটাই তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। তাকে সঙ্গ দেওয়া রুবেল হোসেনের ব্যাট থেকে আসে ১৬ রান।

বল হাতে ক্যারিবীয়দের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫ উইকেট নেন শ্যানন গ্র্যাবিয়েল। এ ছাড়া জেসন হোল্ডার তিনটি ও মিগুয়েল কামিন্স নেন দুই উইকেট।

এর আগে প্রথম দিন মধ্যাহ্ন বিরতির আগেই মাত্র ৪৩ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ, যেটা টেস্টে বাংলাদেশের সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ। জবাবে ক্রেইগ ব্রাথওয়েটের সেঞ্চুরি ও ডেভন স্মিথ-শাই হোপের জোড়া হাফ সেঞ্চুরিতে ৪০৬ রানের সংগ্রহ পায় স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ।