চেয়ারম্যানের দেয়া কৃতিম পা সংযোজন করে জীবন যুদ্ধে টিকে থাকার স্বপ্ন:জাফরের

0
941

অমল কৃষ্ণ মন্ডল, পাইকগাছা (খুলনা):
পাইকগাছায় ইউপি চেয়ারম্যানের দেওয়া কৃতিম পা সংযোজন করে সড়ক দুর্ঘটনায় পঙ্গু যুবক জাফর পুর্বের মত জীবন যুদ্ধে বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখছেন। মঙ্গলবার সকালে লস্কর ইউনিয়ন পরিষদ লক্ষ্মীখোলায় চেয়ারম্যান কেএম আরিফুজ্জামান তুহিনের অর্থ সহায়তায় জাফর তার একমাত্র শিশুপুত্র, বাবা-মায়ের উপস্থিতিতে কৃতিম পা সংযোজন করে আনন্দে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে সকলের কাছে দোয়া চেয়ে লজ্জার ভিক্ষাবৃত্তি ত্যাগ করার কথা জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, প্যানেল চেয়ারম্যান তাজউদ্দীন আহমেদ, ইউপি সদস্য প্রকাশ চন্দ্র মন্ডল, হাসানুজ্জামান, অরবিন্দু মন্ডল, আসাফুর রহমান, রমেছা বেগম, পরিষদ সচিব ফার”ক আহমেদ সরদারসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ।
উপজেলার বিরাশী গ্রামের আনছার মোড়লের ছেলে জাফর এ বছরের জানুয়ারীতে ইটভাটা শ্রমিক হিসেবে সড়ক পথে সিএনজিতে করে লক্ষীপাশায় যাচ্ছিল। এক সময় লোহাগোড়া পৌছালে দ্র”ত গতির পিকআপ সিএনজিকে চাপা দিলে জাফর সহ অনেকে হতাহত হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার উর”র নিচ থেকে ডান পা সম্পূর্ণ কেটে বাদ দিলে জাফর পঙ্গুত্ব বরণ করে। চেয়ারম্যানের উপকারের কথা আজীবন মনে রাখার কথা বলে জাফরের দরিদ্র বাবা আনছার মোড়ল-মা ছায়মন বিবি জানান, পঙ্গু ছেলের জন্য ভিটেবাড়ীর ২ শতক জমি বিক্রি করে চিকিৎসা করাই। সংসার অচল হয়ে পড়লে নির”পায় হয়ে জাফর কমিশনের বিনিময়ে অন্যদের সাহায্যে ভিক্ষাবৃত্তিতে নেমে পড়েন। নাজুক এ অবস্থার মধ্যে ইতোমধ্যে পঙ্গু স্বামী, একমাত্র শিশুপুত্র রাসেলকে রেখে স্ত্রী সংসার ছেড়ে চলে গেছেন। ইউপি চেয়ারম্যান তুহিন জানান, ঈদুল ফিতরের পুর্বে ভ্যানে করে দুজন ছেলের সাহায্যে জাফর ইউনিয়ন পরিষদে ভিক্ষাবৃত্তি করতে আসলে আমি নিজেকে সামলাতে পারেনি। তাই তার কৃতিম পা’র জন্য প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ হলেও জাফর চলাফেরা করতে পারছে এটাই আমার শান্তি।