চার হাজার চিকিৎসক নিয়োগের ফল আগামী সপ্তাহে

0
34

টাইমস ডেস্ক: চিকিৎসক নিয়োগে ৪২তম বিশেষ বিসিএসের চ‚ড়ান্ত ফল তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। আগামী সপ্তাহের শুরুতে এ ফল প্রকাশ করা হতে পারে বলে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) থেকে জানা গেছে। এ বিষয়ে পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) নুর আহমদ গতকাল বুধবার বলেন, ৪২তম বিশেষ বিসিএসের ফলাফল প্রকাশের প্রস্তুতি চলছে। চলতি সপ্তাহে অথবা আগামী সপ্তাহের শুরুতে এ ফল প্রকাশ করা হতে পারে। পিএসসি সূত্র জানায়, ৪২তম বিশেষ বিসিএসের ফল প্রকাশ করতে পিএসসি কমিশনের অনুমোদন প্রয়োজন রয়েছে। এজন্য কমিশনের সভা ডাকা হবে। আগামী সপ্তাহের রোববার এ সভা অনুষ্ঠিত হতে পারে। কমিশনের সভার অনুমোদন দেওয়া হলে সভা শেষে এ ফল প্রকাশ করা হবে। এদিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, প্রথমে ৪২তম বিসিএস থেকে দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগের কথা থাকলেও সরকারের বিশেষ ক্ষমতায় এখান থেকে আরও দুই হাজার অর্থাৎ মোট চার হাজার চিকিৎসক নিয়োগর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সরকারের ইচ্ছে দ্রæত সময়ে এ চিকিৎসকদের নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করে তাদের পদায়ন করা। এ বিষয়েও সরকারের বিভিন্ন দপ্তর কাজ করে যাচ্ছে। এর আগে করোনার সময় দফায় দফায় পেছানো হয় ৪২তম বিসিএসের ভাইভা। পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও করোনার সময় বিশেষভাবে চিকিৎসক নিয়োগ দিতে কাজ করে পিএসসি। এ সময় জরুরি অবস্থাতেও সরকারের কাছে বিশেষ অনুমতি নিয়ে কাজ করে পিএসসি। এর আগে ৫ মে পিএসসি বলেছিল, ৪২তম বিসিএস বিশেষ ক্যাডারের লিখিত পরীক্ষায় (এমসিকিউ টাইপ) উত্তীর্ণদের মধ্যে ছয় হাজার ২২ জনের মৌখিক পরীক্ষা শুরু হবে ২৩ মে। আর ৩০ জুন পর্যন্ত ভাইভা অনুষ্ঠিত হবে। পরে ১৮ মে বিজ্ঞপ্তিতে পিএসসি জানায়, করোনার পরিস্থিতি বিবেচনায় বিধিনিষেধের কারণে ৪২তম বিসিএস (বিশেষ) মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। অল্প সময়ের মধ্যে নতুন তারিখ জানানোর কথা বলা হয়েছিল। পরে ৬ জুন শুরু থেকে আবার ভাইভা শুরু করে পিএসসি। এ পরীক্ষা ১৩ জুলাই পর্যন্ত চলার কথা থাকলেও করোনার কারণে সেই ভাইভা আরও কয়েক দফায় স্থগিত করে ১৩ আগস্ট শুরু করা হয়। করোনার প্রেক্ষাপটে দুই হাজার চিকিৎসককে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দিতে গতবছর ৪২তম বিশেষ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এরপর ২৬ ফেব্রæয়ারি অনুষ্ঠিত প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় (লিখিত টাইপ) ৩১ হাজার চিকিৎসক অংশ নেন। পরীক্ষার এক মাস পর ২৯ মার্চ এই বিসিএসের ফল প্রকাশ করে পিএসসি। এতে উত্তীর্ণ হন ছয় হাজার ২২ জন।