চলে গেলেন একাত্তরের অসীম সাহসী বীর কাঁকন বিবি

0
483

এখন তো যাবারই কাল, দুয়ারে মৃত্যুদূত দাঁড়িয়েই আছে তাঁদের এক এক করে নিয়ে যাবে এই বাংলা থেকে। আর আমরা অযুত সন্তান হতে থাকবো ছায়াশুন্য। এখন গ্রহণের কাল……

বীরপ্রতীক কাঁকন বিবি (নূরজাহান বেগম), একটি আখ্যান। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের এক অবিস্মরণীয় অধ্যায় তিনি। আজ (২১ মার্চ) রাত ১১ টায় সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি প্রায় শত বছর বয়সে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলায়হে রাজেউন…।

মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে তিনি স্বামীকে খুঁজতে বেড়িয়ে পাকি হার্মাদ বাহিনীর হাতে ধরা পড়ে অমানবিক নির্যাতনের শিকার হন। এরপর জুলাই মাসে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে দেখা করেন তিনি। মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী তার সাথে সেক্টর কমাণ্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল মীর শওকতের সাথে দেখা করিয়ে দেন। তাঁর ওপর দায়িত্ব পড়ে গুপ্তচর হিসেবে বিভিন্ন তথ্য জোগাড় করার। তিনি অসমসাহসিকতার সাথে বিভিন্ন রূপে পাকিস্তানীদের কাছ থেকে বিভিন্ন তথ্যসংগ্রহ করেন। তাঁর সংগৃহীত তথ্যের ওপর ভিত্তি করে মুক্তিযোদ্ধারা অনেক সফল আক্রমণ পরিচালনা করেছিল।

গুপ্তচরের কাজ করতে গিয়েই দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজারে পাক বাহিনীর হাতে পুনরায় ধরা পড়েন তিনি। এবারে একনাগাড়ে ৭ দিন পাকিস্তানী বাহিনী ও রাজাকারেরা তাঁর ওপর পুনরায় অমানুষিক নির্যাতন চালায়। অজ্ঞান হয়ে গেলে মৃত ভেবে তাঁকে ফেলে রেখে যায় পাকিস্তানী সেনাসদস্য ও রাজাকাররা।

পরে জ্ঞান ফিরে আসলে তাঁকে উদ্ধার করে বালাট সাবসেক্টরে নিয়ে আসা হয়। সুস্থ হয়ে তিনি পুনরায় ফিরে আসেন বাংলাবাজারে। অস্ত্র চালনায় প্রশিক্ষিত হন মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলীর কাছে। পরবর্তীকালে তিনি সম্মুখ যুদ্ধ আর গুপ্তচর উভয় কাজই শুরু করেন।এরপরে প্রায় ২০টি যুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন তিনি। ১৯৭১ সালের নভেম্বর মাসে টেংরাটিলায় পাক সেনাদের সাথে সম্মুখযুদ্ধে অংশ নেন তিনি। এই যুদ্ধে তাঁর দেহে কয়েকটি গুলি বিদ্ধ হয়। আজ মৃত্যুর সময়েও তাঁর উড়ুতে গুলি রয়ে গিয়েছে।

১৯৯৬ সালে প্রধানমন্ত্রী তাঁকে বীরপ্রতীক উপাধি’তে ভূষিত করার ঘোষণা দেন। কিন্তু আজও তা গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়নি। সেই গেজেটের আর কোন প্রয়োজন পড়বেনা এই বীরপ্রতীকের।

আমাদের মাননীয়’দের সকল দায়মুক্তি দিয়ে আজ চিরতরে পরম করুনাময়ের আশ্রয়ে চলে গেলেন একাত্তরের অসীম সাহসী বীর কাঁকন বিবি।

গেরিলা ১৯৭১ ও পরিবার, আপনার আত্মার চিরশান্তি প্রার্থনা করছি। এছাড়া আমাদের মতো অথর্বের আর কিছুই করার নেই।

সূত্র: ফেসবুক/গেরিলা ৭১