চলে গেছে ভারত অধিবাসী কুকুর ভক্ত পাগলি আরতি নাগ

0
315

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি : চলে গেছে ভারত অধিবাসী আরতি নাগ নামে সেই কুকুর ভক্ত পাগলিটা। দীর্ঘদিন সে ডুমুরিয়া উপজেলার খর্ণিয়া বাজারের একটি টোল ঘরে অবস্থান করে আসছিলো। বিনা চিকিৎসায় রবিবার ভোর ৬টার দিকে তার মৃত্যু হয়েছে। দুপুরে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ ও বাজার ব্যবসায়ীবৃন্দের উদ্যোগে খর্ণিয়া মহাশ্মশানে আরতি নাগের অন্তেষ্ট্রিক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। তার মৃত্যুতে এলাকার অনেক মানুষ শ্মশান ঘাটে চোখের পানি ঝরিয়েছে।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, ৫/৬ বছর যাবত আরতি নাগ(৫৫) খর্ণিয়া বাজারে টোল ঘরে অবস্থান করছে। দিনের বেলায় বাজার দিয়ে এদিক সেদিক ঘোরা ফেরা করে এবং রাতে টোল ঘরে গিয়ে ঘুমায়। ক্ষুদা লাগলে বাজারের ব্যবসায়ীদের কাছে হাত পাতলেই তার খাবার মিলতো। এভাবে চলে আসছে তার এযাবতকাল। কিন্তু আরতি নাগের সঙ্গী ছিলো কুকুর। এক কক্ষে এক চটের উপরে আরতি ও কুকুর ঘুমাতো। তাও একটা দুইটা না, অন্তত ৫/৭টি কুকুর সব সময় তার সঙ্গী ছিলো। একটি মজার ব্যাপার হচ্ছে আরতি ভিক্ষা করা খাবার শুধু নিজে খেত না, তার সঙ্গী কুকুরদেরকেও খাওয়াতো। কিন্তু সেই ব্যাক্তি বিনা চিকিৎসায় ইহোলক ত্যাগ করেন। খর্ণিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ দিদারুল হোসেন দিদার জানান, আরতি নাগ অত্যান্ত ভালো মনের একজন মানুষ ছিলো। যদিও মানুষ তাকে পাগলি বলতো কিন্তু কখনো তাকে পাগলামি করতে দেখিনি। তার কাছ থেকে শোনামতে আরতি নাগ একজন স্বামী পরিত্যক্ত মহিলা। তার বাড়ি ছিলো ভারতের নবদ্বীপে। সন্ধ্যা হলেই পাগলিটা তার ধর্মের নামকীর্ত্তন করতো। তার মৃত্যুতে এলাকায় মানুষের মধ্যে যেমন শোক বিরাজ করছে, ঠিক তেমনি বাজারের প্রভুভক্ত কুকুরগুলোর মধ্যেও কিন্তু শোকের অনুভুতি লক্ষ্য করা গেছে। শশ্মানঘাটে কুকুরগুলো সর্বক্ষনিকভাবে ছিলো।